বিনোদন

আমজাদ হোসেনের শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি

ডেস্ক রিপোর্টঃ ব্যাংককে চিকিৎসা শুরুর চার দিনের মাথায় বাবাকে নিয়ে আশার খবর শোনালেন তাঁর ছোট ছেলে সোহেল আরমান। রোববার বিকেলে ব্যাংকক থেকে তিনি জানান, জনপ্রিয় অভিনয়শিল্পী ও দেশবরেণ্য চিত্র পরিচালক আমজাদ হোসেনের শারীরিক অবস্থার এখন কিছুটা উন্নতি হয়েছে।

মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হওয়ায় গত ১৮ নভেম্বর রাজধানীর তেজগাঁওয়ের ইমপালস হাসপাতালে ভর্তি করা হয় আমজাদ হোসেনকে। হাসপাতালে তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। শুরু থেকেই তাঁকে কৃত্রিম উপায়ে শ্বাসপ্রশ্বাস দিয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়। বাংলাদেশের বরেণ্য এই নির্মাতার শারীরিক অসুস্থতার খবর শুনে হাসপাতালে ভর্তির তিন দিনের মাথায় তাঁর চিকিৎসার দায়িত্ব নেওয়ার আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতায় আমজাদ হোসেনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ব্যাংকক নেওয়া হয়। ২৭ নভেম্বর মধ্যরাতে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাঁকে ব্যাংককে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। সেখানে তিনি প্রখ্যাত নিউরোসার্জন টিরা ট্যাংভিরিয়াপাইবুনের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন।

আমজাদ হোসেনের শারীরিক অবস্থার সর্বশেষ খবর সম্পর্কে চিকিৎসকের বরাত দিয়ে সোহেল আরমান বলেন, ‘আজ দুপুরে চিকিৎসক জানিয়েছেন, বাবার শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। কিডনির সমস্যা এখন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আছে। শরীরের ভেতরে অন্য যেসব প্রদাহ ছিল, সেসবও নিয়ন্ত্রণে আছে। রক্তচাপও স্বাভাবিক। মস্তিষ্কের সমস্যা নিয়ে চিকিৎসকেরা কাজ শুরু করেছেন।’

ব্যাংককে নেওয়ার পর থেকেই সোহেল আরমান আর তাঁর বড় ভাই নির্মাতা সাজ্জাদ হোসেন দোদুল বাবার চিকিৎসাসেবা নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। সোহেল আরমান বলেন, ‘এখানে আনার পর থেকেই চিকিৎসকদের তৎপরতা আর তাঁদের চিকিৎসাসেবায় আমরা ভীষণ খুশি। রোগীর প্রতি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের আন্তরিকতা আমাদের ভালো লেগেছে। মনে হচ্ছে, খুব ভালো ট্রিটমেন্ট হচ্ছে।’

বরেণ্য চলচ্চিত্রকার, গীতিকার ও চিত্রনাট্যকার এবং লেখক আমজাদ হোসেনের উন্নত চিকিৎসার খরচ বাবদ ২০ লাখ টাকা এবং এয়ার অ্যাম্বুলেন্সের ভাড়া বাবদ ২২ লাখ টাকা পরিবারের হাতে তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত রোববার রাতে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে ৪২ লাখ টাকার চেক গ্রহণ করেন আমজাদ হোসেনের ছেলে সোহেল আরমান। বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close