চারঘাটশিরোনাম

গায়েবি মামলায় ফের বিএনপির এম পি প্রার্থী আবু সাঈদ চাঁদ গ্রেফতার

বিশেষ প্রতিনিধিঃ রাজশাহী-৬ (চারঘাট-বাঘা) আসনে বিএনপির প্রার্থী আবু সাঈদ চাঁদকে নতুন একটি গায়েবি মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
প্রতিবারই নতুন নতুন মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। ফলে মুক্তি পেতে গিয়ে বারবার আটকে গেছেন বিএনপির এই দাপুটে নেতা। এই পরিস্থিতিতে কারাগারে বসেই এবার ভোট করতে হবে চাঁদকে বলে জানান দলীয় নেতাকর্মীরা। গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সব মামলাতেই বিভিন্ন আদালত থেকে তার জামিন মঞ্জুর হলেও নতুন এ মামলায় ফের রোববার তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত সেপ্টেম্বরে এসআই আতাউর রহমান বাদী হয়ে বাগমারা থানায় দায়েরকৃত একটি গায়েবি মামলা রুজু করা হয়। এ মামলার অধিকাংশ আসামি স্থানীয় বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
বাগমারা থানা পুলিশ সম্প্রতি চারঘাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও রাজশাহী-৬ আসনে বিএনপির প্রার্থী আবু সাঈদ চাঁদকে গ্রেফতার দেখানোর জন্য রাজশাহীর বিচারিক হাকিমের আদালতে আবেদন করেন। গত রোববার শুনানি শেষে বাগমারা থানার ওই মামলায় চাঁদকে গ্রেফতার দেখানো হয়।
চারঘাট উপজেলা বিএনপির দফতর সম্পাদক জালালউদ্দিন জানান, চাঁদকে একের পর এক গায়েবি মামলা দিয়ে কারাগারে আটকে রাখা হচ্ছে। পুলিশ পরিকল্পিতভাবেই এসব করছে বলে অভিযোগ করেন। নতুন করে আরেকটি মামলায় গ্রেফতার দেখানোর ফলে বিএনপি প্রার্থী আবু সাঈদ চাঁদের মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ হল।
বিএনপির দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ১ সেপ্টেম্বর নিজ এলাকা শলুয়া থেকে বিএনপি নেতা চাঁদকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এর পর বিভিন্ন মামলায় বিভিন্ন আদালত থেকে একাধিকবার চাঁদের জামিন মঞ্জুর হলেও তাকে কারাগার থেকে মুক্তি দেয়া হয়নি।
দলীয় নেতাকর্মীরা আরও জানান, রাজশাহী-৬ আসনে চাঁদ লড়ছেন আওয়ামী লীগের শক্তিশালী প্রার্থী পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সঙ্গে।
এর আগে বিএনপি চাঁদকে মনোনয়ন দিলে কারাগার থেকেই চাঁদ মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তবে ২ ডিসেম্বর রিটার্নিং অফিসার তার মনোনয়নপত্র বাতিল করেন। শেষে গত শনিবার তিনি নির্বাচন কমিশনে আপিল করে প্রার্থীতা ফিরে পান।
বিএনপি প্রার্থী আবু সাঈদ চাঁদকে নতুন মামলায় গ্রেফতার দেখানোর কথা স্বীকার করে বাগমারা থানার ওসি নাছিম আহম্মেদ জানান, নাশকতা ও সহিংসতা সৃষ্টির বাগমারা থানার নতুন একটি মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানোর জন্য পুলিশ আদালতে আবেদন করেন। আদালত শুনানি শেষে চাঁদকে গ্রেফতার দেখিয়েছেন।বরেন্দ্র বারতা/এই

Close