চারঘাটশিরোনাম

বিশেষ প্রতিবেদন: ভোটার শুন্য ভোট কেন্দ্রে, বাক্স ভর্তি ভোট

বিশেষ প্রতিনিধি: চারঘাটের সলুয়া ইউনিয়নের বেলঘরিয়া বাজারে দুটি ভোট কেন্দ্রে সকাল থেকেই বিরতিহীন ভোট গ্রহন চলছে। কিন্তু ভোটার উপস্থিতি খুবই কম। যারা তাওবা উপস্থিত হয়েছেন তাদের অধিকাংশেই ভোট কেউ দিয়ে ফেলেছে বলে জানা যায়। আব্দুস সাত্তার হাই স্কুল সেন্টারে সকাল ১০ টায় ভোট দিতে এসেছিলেন পার্শ্ববর্তী গ্রামের দুই গৃহবধু। তারা জানালেন তারা ভোট দিতে পারেননি, পোলিং অফিসার বলেছে তাদের ভোট হয়ে গেছে, তারা যেন বাড়ী চলে যায়। সকাল ১০ টায় এই কেন্দ্রে ভোট পড়েছে ৬২৫ ‍টি। বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার উপস্থিতি কমে যায়। সকাল ১১টায় ভোটার শুন্য হয়ে পরে। বেলা ১২ টায় কেন্দ্রের পাশে কে বা কারা ককটেলের বিস্ফোরন ঘটায়। এসময় মানুষের মাঝে আতঙ্ক তৈরী হ্য়। তবে এর পর-পরেই কয়েকজন যুবক কেন্দ্র থেকে বেরিয়ে আসে। তারা কে কত গুলো ব্যালট পেপারে নৌকার সিল মেড়ে বাক্সে ভরেছে সে বিষয়ে কথা বলছিল।

দুপুর হবার সাথে দাথে ভোটার উপস্থিতি আরো কমে যায়। দুপুর ১টায় ভোট গ্রহনের সংখ্যা ১৮৩৫টি। এই কেন্দ্রের মোট ভোটার ২৮১১টি। ভোটারহীন নির্বাচনে এত ভোট আসে কিভাবে এই নিয়ে দিনব্যাপী আলোচনা ছিল ভোটারদের মুখে মুখে। বেলঘরিয়া বাজারে দেলবর, মুক্তার, হামিদের সাথে কথা হলে তারা জানায়, তারা ভোট দিতে গেলেও তাদের ভোট দেয়া হয়ে গেছে বলে পোলিং অফিসার জানান।

এই এলাকার নৌকা মার্কার একজন সমর্থক জানান, এই এলাকায় ধানের শীষের প্রার্থী না থাকায় ভোট সংগ্রহ কম, আমরাতো জানি, এখানে নৌকা জিতবে। ভোট একটু বাড়ানোর জন্য অল্প কিছু নৌকার ভোট নিজেরা ছিড়ে বাক্সে ফেলা হইছে।

 এ বিষয়ে একজন নির্বাচন প্রর্যবেক্ষক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ভোটার উপস্থিতি খুবই কম। কিন্তু এই পরিবেশে এত ভোট সংগ্রহ হলো কিভাবে তা সত্যিই প্রশ্ন সাপেক্ষ। এক তরফা নির্বাচন হচ্ছে। প্রিজাইডিং অফিসার বলেন ভোট গহন সুষ্ঠ হয়েছে। ভোট দিতে না পারার বিষয়ে কেউ কোন আভিযোগ করেনি। বরেন্দ্র বার্তা/এই

Close