বিনোদন

মরোনত্তর পদক পেলেন ‘পপগুরু’ আজম খান

বিনোদন ডেস্ক:মুক্তিযোদ্ধা ও পপ গানের পথিকৃৎ আজম খানকে একুশে পদকে সম্মানিত করা হচ্ছে। সংগীতে অবদানের জন্য দেশের জাতীয় এবং দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক এ পুরস্কারে ভূষিত হচ্ছেন তিনি।

যদিও জীবদ্দশাতেই আজম খানকে এই সম্মাননা প্রদানের জন্য জোর দাবি উঠেছিল সর্বস্তরের পক্ষ থেকে। কারণ, তিনি একাধারে বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং বাংলাদেশের ব্যান্ড ও পপ গানের পথিকৃৎ। কিন্তু জীবিত অবস্থায় একুশে পদক তিনি পাননি। এমনকি ২০১১ সালের ৫ জুন তাঁর মৃত্যুর পরেও ভক্তদের পক্ষ থেকে মরণোত্তর একুশে পদক দেওয়ার বিষয়ে জোর দাবি ওঠে। তবে গত ৭ বছরে সেটি ঘটেনি।

কারণ হিসেবে অনেকেই তখন বলেছিলেন, ব্যান্ড ঘরানার শিল্পীরা সচরাচর এ ধরনের জাতীয় সম্মাননার জন্য নির্বাচিত হন না! তবে সেসব গুজব উড়িয়ে দিয়ে এবার সত্যি সত্যি একুশে পদকের মতো সম্মাননা যাচ্ছে আজম খানের ঘরে। যদিও সেটি ঘটছে অনেক দেরি করে, তাঁর অবর্তমানে!

এই পুরস্কার প্রদানের ঘোষণার প্রতিক্রিয়া হিসেবে উচ্ছ্বসিত দেশের আরেক শীর্ষ পপ তারকা ফেরদৌস ওয়াহিদ। আজম খানের সঙ্গে দলবেঁধে সংগীতের লম্বা পথ পাড়ি দিয়েছেন তিনিও। এই পপ তারকা বাংলা ট্রিবিউনকে বললেন এভাবে, ‘খবরটি পেয়ে আমি ভয়ঙ্কর লেভেলের খুশি হয়েছি। আমাদের ফিরোজ সাঁইকে যখন দেওয়া হয়েছে, তখনও ভালো লেগেছে। সেটিও মরণোত্তর ছিল। তবে আজম খান এই পুরস্কারের যোগ্যতা অর্জন করেছেন বহু বছর আগেই। তিনি বেঁচে থাকতে এই সম্মাননা পাওয়া উচিত ছিল বলে আমি মনে করি।’

এদিকে আজম খানের মেয়ে ইমা খান ও ছেলে হৃদয় খানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।এবার সংগীত বিভাগ থেকে আজম খান ছাড়া আরও দুজন পুরস্কার পাচ্ছেন। তারা হলেন আধুনিক-চলচ্চিত্র গানের শিল্পী সুবীর নন্দী ও নজরুলসংগীত শিল্পী খায়রুল আনাম শাকিল। অভিনয়ে পুরস্কার পাচ্ছেন নন্দিত অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা, লাকী ইনাম ও মঞ্চ অভিনেতা লিয়াকত আলী লাকী। মোট ২১ জনকে এবার একুশে পদক দেওয়া হচ্ছে।

বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারি) সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. ফয়জুর রহমান ফারুকী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে পদকপ্রাপ্তদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে জানানো হয়, আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব পদক প্রদান করবেন। এদিন বিকাল ৪টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠানটি হয়।পদকপ্রাপ্ত প্রত্যেককে ১৮ ক্যারেট সোনার তৈরি ৩৫ গ্রাম ওজনের একটি পদক, দুই লাখ টাকা, একটি সম্মাননাপত্র এবং একটি রেপ্লিকা দেওয়া হয়।বরেন্দ্র বার্তা/আবি

 

Close