জাতীয়শিক্ষাঙ্গন বার্তাশিরোনাম

ডাকসু নির্বাচন : ছাত্রলীগ ছাড়া সবার ভোট বর্জন,ভিসির পদত্যাগ দাবী,কাল থেকে ছাত্র ধর্মঘট

বরেন্দ্র বার্তা ডেস্ক :ভোট শুরু আগেই বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলে ছাত্রলীগ প্যানেলের প্রার্থীদের পক্ষে সিল মারা এক বস্তা ব্যালট পেপার উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে মুখে হলের প্রাধ্যক্ষ শবনম জাহানকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

অন্যদিকে রোকেয়া হল ও সুফিয়া কামাল হলে ভোট শুরুর আগে ব্যালট বাক্স না দেখানোর অভিযোগে হল দুটিতে বিক্ষোভ করে ছাত্রীরা। তাদের বিক্ষোভের মুখে বর্তমানে এই দুই হলেই ভোটগ্রহণ বন্ধ রয়েছে।

এছাড়া কৃত্রিম লাইন সৃষ্টি করে ছাত্রলীগ সাধারণ শিক্ষার্থীদের ভোট প্রদানে বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

চলমান এসব অভিযোগের র ভিত্তিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন বর্জন করেছে প্রগতিশীল ছাত্রজোট, কোটা সংস্কার আন্দোলনের ব্যানারে সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ, স্বতন্ত্র জোট এবং স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ,ও ছাত্রদল। এ ছাড়াও বেশ কিছু স্বতন্ত্র প্রার্থীও ভোট বর্জন করেছেন। একই সঙ্গে নির্বাচন আবার অনুষ্ঠানের দাবির জানিয়েছেন প্যানেলগুলোর নেতারা।একই সঙ্গে ভিসির পদত্যাগ দাবি করেছে তারা।

সোমবার দুপুর ১টায় ঢাবির মধুর ক্যান্টিনে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তারা এই ভোট বর্জনের কথা জানান।

এদিকে ভোট জালিয়াতির অভিযোগ এনে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। অবিলম্বে নতুন তফসিল ঘোষণার দাবি জানিয়ে ক্যাম্পাসে মঙ্গলবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দেন তারা। এ সময় সব ক্লাস বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন তারা।

হল সংসদ নির্বাচন বর্জনের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের (ভিসি) বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছে ছাত্রদল।

সেখানে অবস্থান নিয়ে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন স্লোগা্ন দিচ্ছেন। ‘প্রহসনের নির্বাচন মানি না মানবো না’, ‘ব্যালট চুরির নির্বাচন ছাত্র সমাজ মানে না’, ‘যে ভিসি ছাত্রলীগের সে ভিসি মানি না’, ‘বাটপারির নির্বাচন ছাত্র সমাজ মানে না’, এ জাতীয় বিভিন্ন স্লোগান দিতে শোনা গেছে তাদের।

অন্যদিকে ছাত্রলীগ প্যানেলের প্রার্থীদের পক্ষে সিল মারা এক বস্তা ব্যালট পেপারে সিল মারার অভিযোগ ‘গুজব’ বলে দাবি করেছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর জিএস প্রার্থী গোলাম রব্বানী।

তিনি বলেন, (নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের সময়) আওয়ামী লীগের পার্টি অফিসে মেয়েরা নির্যাতিত হচ্ছে- এমন গুজব ছড়ানো হয়েছিল। ঠিক একই ধরনের গুজব ছড়িয়ে ডাকসু নির্বাচন বানচাল করার চেষ্টা চলছে।ডাকসু নির্বাচন : ছাত্রলীগ ছাড়া সবার ভোট বর্জন,ভিসির পদত্যাগ দাবী

পরে নির্বাচন বাতিল না করা পর্যন্ত ভিসি অফিসের সামনে অবস্থানের ঘোষণা দিয়েছে নির্বাচন বর্জনকারী প্যানেলগুলো। সোমবার বিকেলে প্রধান নির্বাচনী কর্মকর্তা অধ্যাপক ড. এস এম মাহফুজুর রহমানের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়ে এসে তারা এমন ঘোষণা দেন।

নির্বাচন বাতিল ও পুনঃতফসিল দাবিতে প্রধান নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন ৫টি প্যানেলের প্রার্থীরা।

বিকেল ৫টায় মহসীন হলটির দায়িত্বে থাকা প্রিসাইডিং কর্মকর্তা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষনা করেন।ডাকসু নির্বাচন : ছাত্রলীগ ছাড়া সবার ভোট বর্জন,ভিসির পদত্যাগ দাবী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হাজী মুহম্মদ মুহসীন হলের ছাত্র সংসদ নির্বাচনে জয় পেয়েছে ছাত্রলীগ। এই হলে সহ সভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন ছাত্রলীগ সমর্থিত প্রার্থী শহিদুল হক শিশির। তিনি পেয়েছেন ৭৬০ ভোট, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শাকিল মিয়া পেয়েছেন ২১৭ ভোট।

অন্যদিকে, জিএস নির্বাচিত হয়েছেন একই প্যানেলের মেহেদী হাসান মিজান। তিনি পেয়েছেন ৬২১ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মিজান রহমান পান ২৫১ ভোট। অন্য ১১টি পদেও ছাত্রলীগ প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন।বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close