শিক্ষাঙ্গন বার্তাশিরোনাম-২

রাবি সমাজকর্ম বিভাগ ও বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

রাবি প্রতিনিধি: মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে শহীদদের শ্রদ্ধা জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) সমাজকর্ম বিভাগ। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় মমতাজ উদ্দিন একাডেমিক ভবনের সংলগ্ন শেখ রাসেল চত্ত্বর থেকে বিভাগ সভাপতি অধ্যাপক ড. এমাজ উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে শেষ হয়। পরে শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে একটি সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হন তারা। সমাবেশে বক্তরা বলেন, আজ মহান স্বাধীনতা দিবস।  আজ থেকে ৪৮ বছর আগে ২৫ মার্চ মধ্য রাতে পাকিস্তান হানাদার বাহিনী এক পৈশাচিক গণহত্যায় মেতে উঠে ঘুমন্ত বাঙালীদের উপর । তারই প্রেক্ষিতে বাঙালী জাতি পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীনতা সংগ্রমে ঝাপিয়ে পড়ে। বিশ্বের মানচিত্রে অভ্যুদয় ঘটে ‘বাংলাদেশ’ নামে নতুন রাষ্ট্রের।

এই দিনটি বাঙালি জাতির সংগ্রামমুখর জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ অর্জন। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন, যার মধ্য দিয়ে গোটা জাতি দেশমাতৃকাকে হানাদারমুক্ত করার চূড়ান্ত যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়। দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী ও বীরত্বপূর্ণ সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগ ও দুই লক্ষ মা বোনের সম্ভ্রমহানীর বিনিময়ে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বাঙালি জাতি বিজয় লাভ করে।

বক্তারা আরো বলে, আমরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারন করবো। স্বাধিকার আন্দোলনে যেসকল সূর্যসন্তানরা জীবন উৎসর্গ করেছে তাদের স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মানে কাজ করে যাবো। একই সাথে পাকিস্তান হানাদারদের এই জঘন্য হত্যাযজ্ঞকে অবিলম্বে আর্ন্তজাতিকভাবে যেন গণহত্যা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয় তার জোড় দাবি জানান তারা।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. ফকরুল ইসলাম, প্রফেসর ড. সাদেকুল আরেফিন মাতিন, প্রফেসর ড. সাইদুর রহমান চৌধুরী, প্রফেসর জি এম ওহাব, সহযোগী অধ্যাপক ড. জামিরুল ইসলাম প্রমুখ।

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

এদিকে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) সকাল ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলা ক্যাম্পাসে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনব্যাপী কর্মসূচির সূচনা হয়। এরপর একটি র‌্যালি বের করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এর পরপরই বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ, ক্লাব পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এ সময় শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। পরে কাজলা ক্যাম্পাসে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন
বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

সভায় বক্তারা বলেন, বহু ত্যাগের বিনিময়ে আমরা কষ্টার্জিত স্বাধীনতা অর্জন করেছি। এই স্বাধীনতাকে অক্ষুন্ন রাখতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. রাশিদুল হকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এবং যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত প্রফেসর ড. এম.সাইদুর রহমান খান, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. মো. মহিউদ্দীন, জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক এবং ইংরেজি বিভাগের সহকারি অধ্যাপক আকরাম হোসেন প্রমুখ। সঞ্চালনা করেন সমাজবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র জুবায়ের আকরাম এবং ইংরেজি বিভাগের ছাত্রী জয়া গোস্বামী।

এ সময়  বিভিন্ন বিভাগের কো-অর্ডিনেটর, বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহনে অনুষ্ঠিত হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান । বরেন্দ্র বার্তা/কাহাঅ/আসাশ/হাপি

Close