মহানগরশিরোনাম

উদ্বোধন হলো ‘বনলতা এক্সপ্রেস’

নিজস্ব প্রতিবেদক: সমস্ত জল্পনা-কল্পনার পর অবশেষে রাজশাহী-ঢাকা-রাজশাহী রুটে নতুন বিরতিহীন বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ৪ মিনিটে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ট্রেনটির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।তিনি বাঁশি বাজিয়ে ও সবুজ পতাকা উড়িয়ে ট্রেনটির উদ্বোধন করেন।উদ্বোধনের আগ মুহূর্তে ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী বলেন,সামনে ঈদ আসছে। আর এই বিরতিহীন ট্রেনের মাধ্যমে ঈদে মানুষ দ্রুত বাড়ি যেতে পারবে।এছাড়া সামনে জৈষ্ঠ মাস আসছে।
রাজশাহী আমের জন্য বিখ্যাত। এই ট্রেনের মাধ্যমে রাজশাহীর আম ঢাকায় দ্রুত চলে আসবে।
তিনি বলেন, আমার কেন জানি মনে হয় রাজশাহীর ওই অঞ্চলটার তেমন কোনো উন্নতিই হয়নি। জানি না কেন সেখানে কোনো কোনো শিল্প কারখানা গড়ে ওঠেনি।সেখানকার অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোরও তেমন একটা উন্নতি হয়নি।
তিনি বলেন, আমরা সেজন্য ওই দিকটায় বিশেষভাবে দৃষ্টি দিচ্ছি যাতে ওখানে মানুষের কর্মসংস্থান বাড়ে আর তাদের জীবনমান যাতে আরও উন্নত হয়।‘উত্তরবঙ্গকে মঙ্গাপীড়িত না রেখে আমরা মঙ্গামুক্ত করছি। পাশাপাশি আমরা চাচ্ছি এই অঞ্চলের মানুষের আর্থসামাজিক অবস্থার আরও উন্নতি হোক’-বলেন প্রধানমন্ত্রী।সামনে ঈদ আসছে। আর এই বিরতিহীন ট্রেনের মাধ্যমে ঈদে মানুষ দ্রুত বাড়ি যেতে পারবে।

উদ্বোধনের পর  রাজশাহী রেল স্টেশন থেকে ট্রেনটি ছেড়ে যায়। প্রথম দিন বনলতা ট্রেনটিতে ভ্রমণে টিকিট  ছাড়াই ভ্রমনের সুযোগ পাচ্ছেন যাত্রীরা।

উদ্বোধন হলো ‘বনলতা এক্সপ্রেস’
ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বনলতার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী

আজ বৃহস্পতিবার সকালে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকা থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ট্রেনটি উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
এসময় রাজশাহীতে উপস্থিত ছিলেন, অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত রয়েছেন, রেলপথ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, এমপি শামসুল হক টুকু, মুনসুর রহমান, শামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নূর-উর রহমান, রাজশাহী রেঞ্জ ডিআইজি হাফিজুর রহমান, পুলিশ কমিশনার হুমায়ুন কবির, জেলা প্রশাসক এসএম আব্দুল কাদের সহ জেলা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধন হলো ‘বনলতা এক্সপ্রেস’১

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাজশাহীতে উপস্থিত রেলমন্ত্রী, রাসিক মেয়র,জেলা প্রশাসক,বিভাগীয় কমিশনারসহ অন্যান্যরা

আজ থেকে ট্রেনটির টিকিট বিক্রি শুরু হবে বলে জানা গিয়েছে। নিধারিত হয়েছে ট্রেন ভাড়া,১৫০ টকার খাবারসহ এসি শ্রেণীর ৮৭৫ টাকা এবং শোভন শ্রেণীর ৫২৫ টাকা করে পড়বে প্রতিটি টিকিটের দাম। আগামী ২৭ এপ্রিল থেকে এ ট্রেনের বাণিজ্যিক যাত্রা শুরু হবে। শুক্রবার ট্রেনটির বন্ধের দিন।
‘বনলতা এক্সপ্রেস’ ট্রেনে থাকছে ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা ১২টি নতুন বগি। এর মধ্যে শোভন চেয়ারের বগি ৭টি। যার আসন সংখ্যা ৬৬৪টি। ২টি এসি বগির আসন সংখ্যা ১৬০টি। ১৬ আসন নিয়ে একটি পাওয়ার কার ও ১০৮টি আসন নিয়ে দু’টি গার্ডব্রেক। সবমিলিয়ে নতুন ট্রেনের আসন সংখ্যা ৯৪৮। এছাড়াও খাবারের জন্য থাকবে একটি খাওয়ার বগি।
বনলতা এক্সপ্রেসের বগি নতুন হলেও ইঞ্জিন পুরাতন। ২০১৩ সালে ভারত থেকে আমদানি করা দুটি ইঞ্জিন দিয়ে চলাচল করবে ট্রেনটি। ঘন্টায় ট্রেনটির সর্ব্বোচ্চ গতিবেগ হবে ৯০ থেকে ৯৫ কিলোমিটার। ‘বনলতা’ এক্সপ্রেস রাজশাহী স্টেশন থেকে সকাল ৭ টায় ছেড়ে ঢাকায় পৌঁছাবে ১১ টা ৪০ মিনিটে। আর ঢাকা থেকে দুপুর ১টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে রাজশাহী পৌঁছাবে সন্ধ্যা ৬টায়।বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close