পুঠিয়াশিরোনাম-২

পুঠিয়ায় নির্দিষ্ট সময়ের আগে আম নামানোয় ৬ জনকে বিনাশ্রম কারাদন্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুঠিয়ায় নির্দিষ্ট সময়ের আগেই গাছ থেকে আম নামানোর অভিযোগে ৬ জনকে কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।
সোমবার দুপুরে পুঠিয়া উপজেলার জিউপাড়া ইউনিয়নের শড়িষাবাড়ি গ্রামের এঘটনা ঘটে।
গতকাল রোববারই রাজশাহীর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে কৃষি বিভাগের কর্মকর্তা, ফল গবেষক, আম চাষী ও আম ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে জাত ভেদে আম নামানোর সময় নির্ধারন করা হয়। আগামী ১৫ মের পরে গুটি জাতের আম, ২০ মের পরে গোপালভোগ এবং ২৫ মের আগে লক্ষণ ভোগ (লখনা) আম না নামানো উপর নিশেধাজ্ঞা জারি করা হয়। আমে রাসায়নিক ক্যামিক্যাল ব্যবহার রোধ করতে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে বলেও জানা গেছে।
কিন্তু প্রশাসনের নিশেধাজ্ঞা অমান্য করে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় বেঁধে দেয়া সময়ের ১২ দিন আগেই লখনা জাতের অপরিপক্ক আম বাজারজাত করার জন্য গাছ থেকে নামানো হয়েছে। তবে নির্ধারিত সময়ের আগেই আম নামানোয় ৬ জনকে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।
পুঠিয়া থানার উপ-পরিদর্শক এসআই মাইনুল ইসলামের নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে আম পাড়ার সময় ৬ জন শ্রমিককে আটক করা গেলেও ব্যবসায়ী মেহেদী হাসান রতনকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে গাছ থেকে পাড়া প্রায় ৩০ মণ অপরিপক্ক লখনা জাতের আম জব্দ করেছেন ভ্রম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওলিউজ্জামান।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ছাড়াও ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মনজুরে মাওলা, মৎস্য কর্মকর্তা ওমর আলী ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওলিউজ্জামান বলেন, অসৎ উদ্দেশ্যে অপরিপক্ক আম বাজারজাত করতে গাছ থেকে নামিয়েছে বলে তারা স্বীকার করেছেন। তাদের প্রত্যেককে ৫ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে এবং জব্দকৃত আম এতিম শিক্ষার্থী ও আবাসন প্রকল্পের আওতায় থাকা লোকজনদের মাঝে বিতরন করা হয়েছে ।
ভ্রম্যমান আদালত সুত্রে জানা গেছে, নির্ধারিত সময়ের আগে আম নামানোর অপরাধে ৬ জনকে বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়েছে এবং অপরিপক্ক প্রায় ৩০ মণ আম জব্দ করে মাদ্রাসার শিক্ষার্থী ও আবাসন প্রকল্পের আওতায় থানা পরিবারের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে।
আটককৃত শ্রমিকরা জানান, আমগুলো পেরে এতে মেডিসিন ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন বাজারে বিক্রি করার জন্য পাঠায় ব্যবসায়ীরা।বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close