পাবনাশিরোনাম

পরীক্ষার হলে অনৈতিক সুবিধা না দেয়ার ঘটনায় আটক ২

নিজস্ব প্রতিবেদক: পরীক্ষার হলে নকল সুবিধা না দেয়ার ঘটনায় পাবনায় সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজের এক প্রভাষকের ওপর হামলাকারী দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ।
বুধবার রাতে পাবনা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়।বৃহস্পতিবার (১৬ মে) ভোরে তাদের গ্রেফতার করা হয়।গ্রেফতারকৃতরা হলেন- সজল ও সাফি।
বুধবার রাতে অধ্যক্ষ প্রফেসর এসএম আব্দুল কুদ্দুস বাদী হয়ে পাবনা সদর থানায় দুজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। এর আগে বুলবুল কলেজের শিক্ষকরা বুধবার (১৫ মে) বিকালে জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিনের সাথে তার কার্যালয়ে বৈঠক করেন। বৈঠকে নেতৃত্ব দেন কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল কুদ্দুস। সেখানে জেলা প্রশাসক তাদের আইনগত পদক্ষেপ নিতে বলেন। এরপর বুলবুল কলেজ শিক্ষক সমিতি রাতে নিজেরা প্রতিবাদ সভা করেন। সেখান থেকে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়ে রাতে মামলা দায়ের করা হয়। এছাড়া বৃহস্পতিবার দুপরে পাবনার আব্দুল হামিদ রোডে প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের ঘোষাণা দেয়া হয়।
পাবনা থানার ওসি ওবাইদুল হক জানান, বুবলবুল কলেজর অধ্যক্ষ প্রফেসর এসএম আব্দুল কুদ্দুস বাদী হয়ে পাবনা সদর থানায় বুধবার রাতে দুইজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। বৃহস্পতিবার ভোরে এদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত বিরুদ্ধে আইনগত পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।
উল্লেখ্য, পরীক্ষার হলে অনৈতিক সুবিধা না দেয়ার ঘটনার জের ধরে পাবনায় সরকারি শহীদ বুলবুল কলেজের এক প্রভাষককে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। প্রহৃত শিক্ষক ওই কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক মো. মাকসুদুর রহমান। তিনি অভিযোগ করেন, কলেজের একজন প্রভাবশালী ছাত্রলীগ নেতার ইন্ধনে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। তবে জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি বলেছেন ছাত্রলীগ কোনো হামলাকারীর দায়ভার নেবে না। যে দোষী হবে তাকে শাস্তি পেতে হবে।
এ দিকে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শিবলি সাদিক জানান, তারা এরই মধ্যে ছাত্রলীগ বুবলবুল কলেজ শাখার সাংগঠনিক কমিটি ও কার্যক্রম স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়া ঘটনাটি তারা সাংগঠনিকভাবে তদন্তের জন্য একটি কমিটি করেছেন। ছাত্রনেতা ফিরোজ আলীকে কমিটির প্রধান করা হয়েছে। তিনি জানান, এর সাথে ছাত্রলীগের কেউ জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close