বাগমারাশিরোনাম-২

বাগমারায় পুকুরে বিষ প্রয়োগ : ৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা

আব্দুল মতিন, বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারায় বাসুপাড়া ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামে পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ওই ঘটনায় পুকুর মালিক হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে একই গ্রামের ৫জনকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাকৃত আসামীরা হলেন, জালাল উদ্দীন, সাগর আহম্মেদ, ফায়সাল মাহমুদ, টিপু সুলতান ও উজ্জল হোসেন। পুলিশ বিষ প্রয়োগের সাথে জড়িত কোন আসামীকে আটক করতে পারেনি বলে জানা গেছে।
বাগমারা থানার মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বাসুপাড়া ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর গ্রামের হাবিবুর রহমানের সাথে একই গ্রামের জালাল উদ্দীনের বিবাদ চলে আসছিল। ওই সকল বিবাদকে কেন্দ্র করে জালাল উদ্দীন হাবিবুর রহমানের পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন করবে বলে তাকে হুমকি দিয়ে আসছিল। ঈদের আগের দিন রাতে জালাল উদ্দীন উপরোক্ত আসামীদের নিয়ে মাছ মারা ট্যাবলেট (বিষ) নিয়ে গভীর রাতে হাবিবুর রহমানের পুকুরে যায়। ওই সময় হাবিবুর রহমানের পুকুর পাহারাদার রইচ উদ্দীন বিষয়টি দেখতে পেয়ে তাদেরকে বাঁধা দেয়। বিষ প্রয়োগকারীরা পাহারাদার রইচ উদ্দীনের বাঁধা অমান্য করেন এবং তাকে হত্যার হুমকি দিয়ে পুকুরে ট্যাবলেট বিষ প্রয়োগ করেন। এসময় পুকুর পাহারাদার রইচ উদ্দীন বিষয়টি মুঠোফোনে হাবিবুর রহমানকে অবহিত করলে রাতেই পুকুর মালিক এলাকার লোকজনকে ডেকে পুকুর পাড়ে আসেন। পুকুর পাড়ে এসে তিনি মাছ মারাযেতে দেখতে পান এবং এলাকার লোকজনের সহযোগীতায় পুকুরে জাল নামিয়ে প্রায় দুই লক্ষ টাকার মাছ ধরে বিভিন্ন আড়ৎ গুলোতে বিক্রি করেন।পুকুর মালিক হাবিবুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, জালাল তার লোকজন নিয়ে পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার মাছ নিধন করেছেন। তিনি অবিলম্বে পুকুরে মাছ নিধনকাদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার দাবী জানিয়েছেন।
বিষয়টি অস্বীকার করেছেন আসামী জালাল উদ্দীন। তিনি উল্টো মামলার বাদী হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, সে আমার বাড়ীর পাঁচটি হাঁস ধরে বিক্রি করেছেন। বিষয়টি প্রকাশ পাওয়ার পর তিনি নিজেকে রক্ষা করার জন্য এমন ঘটনা সাজিয়েছেন। তিনিও ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের মাধ্যমে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইন শৃংখলা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার ওসি আতাউর রহমান বলেন, মাছ মারার অভিযোগে থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। পুলিশ আসামীদের গ্রেপ্তারের জন্য তৎপর রয়েছেন বলে তিনি জানিয়েছেন। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close