বাগমারাশিরোনাম-২

বাগমারায় পুকুর লিজের ঘটনায় প্রতিপক্ষের হামলায় ১০ জন আহত

আব্দুল মতিন, বাগমারা প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ঝিকরা ইউনিয়নে শনিবার সন্ধায় সরকারী পুকুর লীজ নেয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের লোকজন বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। হামলার ঘটনায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। খবর পেয়ে বাগমারা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি শান্ত করেন এবং আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বাগমারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। আহতদের মধ্যে রিমা খাতুন (২৫) ও ফাইম হোসেনের (৮) অবস্থা আশংকা জনক বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন। অন্যান্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

ওই ঘটনায় আহত রিমা খাতুনের স্বামী আফজাল হোসেন বাদী হয়ে আজ রোববার ১৫ জনের নামে বাগমারা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছেন। ঘটনার পর থেকেই এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। থানার লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ঝিকরা ইউনিয়নের মধ্যঝিনা গ্রামের ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান ও গুনিয়াডাঙ্গা গ্রামের আফজাল হোসেন যৌথ ভাবে মাছ চাষের জন্য সরকারী নীতিমালা অনুসারে উপজেলা জলমহল কমিটির কাছ থেকে সরকারী পুকুর টেন্ডারের মাধ্যমে লীজ গ্রহন করে মাছ চাষ করে আসছিলেন। এবারো তারা পুকুরটি লীজ নেয়। মসজিদের নাম ভাঙ্গিয়ে এলাকার কিছু ব্যক্তিবর্গ গত মঙ্গলবার পুকুরটি নিজেদের নামে দখলের চেষ্টা করে। বিষয়টি জানার পর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) আবুল হায়াত উভয় পক্ষের শুনানী শেষে হাবিবুর রহমানের পক্ষেই রায় দিয়ে তা উভয় পক্ষের মধ্যে মিমাংসা করে দেয়। কিন্ত মিমাংসার দুই দিন পর (গত বৃহস্পতিবার) সহকারী কমিশনার (ভুমি) আবুল হায়াতের বদলীর বিষয়টি জানার পর প্রতিপক্ষের আব্দুল লতিফ, হামিদুল হক, জিয়াউর রহমানসহ তারা মিমাংসা না মেনে আবারো তারা পুকুরটি দখলে নেয়ার চেষ্টা করেন। গত শনিবার বিকেলে আফজাল হোসেন পুকুরে মাছের খাবার দিতে গেলে জিয়াউর রহমানসহ তাদের লোকজন বাঁধা সৃষ্টি করে আফজাল হোসেনকে মারধর করে।

বিষয়টি জানার পর তার পক্ষের লোকজন জিয়া পক্ষের লোকজনকে মারধর করলে গত শনিবার সন্ধ্যায় জিয়াপক্ষের লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে আফজাল
হোসেনের বাড়িঘরে হামলায় চালায়। হামলার খবর পেয়ে বাগমারা থানার পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে যায় এবং পরিস্থিতি শান্ত করে আহতদের চিকিৎসার জন্য বাগমারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন। পুকুরের লীজ গ্রহিতা ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, তারা বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে লুটপাট ও নারী শিশুসহ অন্তত দশজনকে শারীরিক ভাবে নির্যাতন করেছে। অপরদিকে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন প্রতিপক্ষের জিয়াউর রহমান জিয়া। তিনি বলেন, মসজিদের উন্নয়নের জন্য এলাকার লোকজন সরকারী পুকুরটি লীজ নিতে চান। কিন্ত তারা নিজেদের স্বার্থে পুকুরটি দখল করে নিতে চায়।

এ ব্যাপারে উপজেলা জলমহাল কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিউল ইসলাম বলেন, সরকারী নীতিমালা অনুসারে পুকুরটি লীজ দেয়া হয়েছে। পুকুর নিয়ে যারা ঝামেলা সৃষ্টি করছে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বাগমারা থানার ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। অপর দিকে বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এলাকার লোকজন পুকুরটির মিমাংসার
জন্য বসার কথা রয়েছে। বসে নিস্পত্তি না হলে আইনগত ব্যবস্থা নিবেন বলে তিনি জানিয়েছেন।
বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close