চারঘাটশিরোনাম-২

চারঘাট মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নেই রাস্তা, ভোগান্তিতে শিক্ষার্থীরা

সজিব ইসলাম,চারঘাটঃ রাজশাহীর চারঘাট উপজেলা সদরে অবস্থিত চারঘাট মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী-শিক্ষক, অবকাঠামো সবই আছে। কিন্তু বিদ্যালয়ে যাওয়ার নেই কোনো নির্দিষ্ট রাস্তা। একটু বৃষ্টিতেই জুতা খুলে হাতে নিয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের­ বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসা করতে হয়। এতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের­ ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে।
বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯০২ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়।বিদ্যালয়টি চারঘাটের প্রাচীনতম প্রতিষ্ঠান গুলোর একটি হিসাবে বিবেচিত হয়। এখানে প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থী রয়েছে ৫৫০ জন। প্রধান শিক্ষকসহ শিক্ষক রয়েছেন ১২ জন। এত সংখ্যক শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অবকাঠামো থাকলেও নেই শুধু নির্দিষ্ট রাস্তা।
গতকাল বুধবার সরেজমিনে দেখা যায়, বিদ্যালয়ের চারদিকেই কাদা পানি।বিদ্যালয়ের প্রধান গেটের সামনেই চারঘাট পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের বিশাল মাঠ।বেশির ভাগ শিক্ষার্থীরা এ মাঠ দিয়েই যাতায়াত করে।কিন্তু একটু বৃষ্টি হলেই মাঠ দিয়ে যাতায়াতের পরিবেশ থাকে না।বিদ্যালয়ের পূর্ব পাশ দিয়ে সরু পাকা রাস্তা থাকলেও বৃষ্টিতে সেটা খানা খন্দে ভরা।সব মিলিয়ে বিদ্যালয়ের নির্দিষ্ট ভাল কোনো রাস্তা নেই।এজন্য বর্ষা মৌসুমে বিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের প্রতিনিয়ত ভোগান্তির শিকার হতে হয়।
বিকেলে বিদ্যালয় ছুটির সময় দেখা গেল, শিক্ষার্থীরা চারঘাট পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠের দুই পাশ দিয়ে জুতা হাতে নিয়ে সারিবদ্ধভাবে বাড়ি ফিরছে। এ সময় পঞ্চম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী বলেন, এভাবে কাঁদা পানির মধ্যে দিয়ে যেতে ভীষণ কষ্ট হয়।অনেক সময় পড়ে গিয়ে কাপড়ও ভিজে যায়।
বিদ্যালয়ের পাশের বাসার বাসিন্দা ও অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সাইফুল ইসলাম বাদশা বলেন, এই বিদ্যালয়ে আমার দাদী সুফিয়া বেগমের জমি দেওয়া আছে।আর আমার বাসার সাথেই বিদ্যালয়টি। সেজন্য বিদ্যালয়টির প্রতি আলাদা মায়া মমতা ও দায়িত্ব রয়েছে। দায়িত্ববোধ থেকেই বিভিন্ন কতৃপক্ষকে বার বার বিদ্যালয়টির জন্য একটি রাস্তা করে দেওয়ার কথা বলেছি।বলতে বলতে হতাশ হয়ে গেছি,কিন্তু উপকার পাইনি। আর কাউকে কিছু বলার নেই।
বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসায় কষ্ট ও দুর্ভোগের কথা উল্লেখ করে প্রধান শিক্ষক শামিমা সুলতানা বলেন, রাস্তার বিষয়টি উদ্ধর্তন কতৃপক্ষ আবগত আছেন।খুব দ্রুতই রাস্তা ঠিক হবে বলে আশা রাখছি।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চারঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ নাজমুল হক বলেন,ইতিমধ্যেই বিদ্যালয়টি পরিদর্শন করে রাস্তা তৈরির জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close