চারঘাটনাটোরপাবনাশিরোনাম-২

আব্দুলপুর ও ঈশ্বরদী থেকে ছেড়েছে ট্রেন

ষ্টাফ রির্পোট : চারঘাটে তেলবাহী ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হওয়ায় যে ট্রেনগুলো বুধবার (১০ জুলাই) রাতে রাজশাহী স্টেশনে যেতে পারেনি সেগুলো সকালে নাটোরের আব্দুলপুর ও ঈশ্বরদী জংশন থেকে নির্দিষ্ট গন্তব্যে রওনা হয়েছে।
লাইনচ্যুত বগিগুলোর উদ্ধার কাজ শেষ হয়নি। যে কারণে রেললাইনও মেরামত হয়নি। ফলে রাজশাহী থেকে সকালের আন্তঃনগর ট্রেন বনলতা, সাগরদাঁড়ি, সিল্কসিটি, কপোতাক্ষ ও বরেন্দ্র এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রা বাতিল করা হয়েছে। তবে এই ট্রেনগুলো নাটোর ও ঈশ্বরদী থেকে বৃহস্পতিবার সকালে ছাড়া হয়েছে। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী রেল স্টেশন মাস্টার আবদুল করিম ।
তিনি বলেন, ‘আশা করা যায়, রাজশাহী থেকে বিকালের পদ্মা ট্রেন রাত আটটার দিকে ঢাকার পথে ছেড়ে যেতে পারবে। বৃষ্টির কারণে উদ্ধার কাজে বিঘ্ন ঘটেছে। রাজশাহী থেকে ঈশ্বরদী পর্যন্ত ট্রেন চলাচল করছে না। তবে যে ট্রেনগুলো রাতে রাজশাহী স্টেশনে আসতে পারেনি সেগুলো আবার সকালে নাটোরের আব্দুলপুর ও ঈশ্বরদী জংশন থেকে নির্দিষ্ট গন্তব্যে রওনা হয়েছে।’
এদিকে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক খন্দকার শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘বুধবার রাতে ঈশ্বরদী থেকে উদ্ধারকারী ট্রেন আসলেও বৃষ্টির জন্য উদ্ধার কাজ শুরু করতে দেরি হয়। এখন বৃষ্টি না হলে দ্রুতই উদ্ধার কাজ শেষ হবে। এতে বিকেল পর্যন্ত সময় লাগতে পারে। এরপরও যতদ্রুত সম্ভব উদ্ধার কাজ শেষ করে রাজশাহী-ঢাকা রেলপথ আবার স্বাভাবিক করার জোরালো চেষ্টা চলছে।’
বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে রাজশাহীর চারঘাট হলিদাগাছির দিঘলকান্দিতে তেলবাহী ট্রেনের ৯টি বগি লাইনচ্যুত হয়। তবে এতে কোনও হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তেলবাহী ওই ট্রেনটি খুলনা থেকে রাজশাহীর হরিয়ানের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। ট্রেনটি ঈশ্বরদী হয়ে রাজশাহীর দিকে যাচ্ছিলো। পথে হলিদাগাছিতে লাইনচ্যুত হয়। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close