বাগমারাশিরোনাম

বাগমারায় জমি নিয়ে সংঘর্ষে দু’পক্ষের নারীসহ ১৫ জন আহত

আব্দুল মতিন, বাগমারা প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারায় জমি দখলকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক ইউপি সদস্য এবং নারীসহ অন্তত ১৫ জন আহতের খবর পাওয়া গেছে। আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য বাগমারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আহতরা হলেন, কাচারী কোয়ালীপাড়া ইউনিয়নের ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক ইউপি সদস্য সামান আলী (৫০), স্থানীয় ইয়াদ আলী (৪৮), জুয়েল রানা (৩৮), গনেশ চন্দ্র (৪৮), চৈতন্ন কুমার (৪৫), শিল্পী রানী (৩৫), কৃষ্ণ কুমার (৪০), জয়দেব কুমার (৩৮) হাবিবুর রহমান (৪২), দিলবর রহমান (৪৬)। সংঘর্ষের খবর পেয়ে বাগমারা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। সংঘর্ষের পর থেকেই এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। ওই এলাকায় পুলিশী টহল জোরদার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।
জানা যায়, উপজেলার কাচারী কোয়ালীপাড়া ইউনিয়নের ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক ইউপি সদস্য সামান আলীর সাথে কাচারী কোয়ালীপাড়া গ্রামের গনেশ চন্দ্রের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। ওই জমির ঘটনায় আদালতে মামলাও বিচারাধীন রয়েছে। বিবাদমান ওই জমি গনেশ চন্দ্র ভোগ দখল করে আসছিল। তা দখলের জন্য বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে সামান আলী তার লোকজন নিয়ে দখলে নেয়ার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে গনেশ জমিতে গেলে উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে সামান আলীর লোকজন গনেশের উপর হামলা চালায়। হামলার খবরটি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে গনেশের লোকজন ঘটনাস্থলে যায়। এসময় দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। খবর পেয়ে বাগমারা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। আহত গনেশ চন্দ্র অভিযোগ করে বলেন, সামান আলী ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই ইউনিয়নে আ’লীগের একাধিক নেতাকর্মীর উপর নানা ভাবে অন্যায় অত্যাচার করে আসছে। তিনি আদালতকে অমান্য করে আমার জমি দখলে নেয়ার চেষ্টা করছেন।
জমি দখলের বিষয়টি অস্বীকার করে ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক সামান আলী পাল্টা অভিযোগ করে বলেন, গনেশ তার লোকজন নিয়ে আমার জমি জবর দখলের চেষ্টা করছেন। তাকে বাঁধা দিলে তিনি তার লোকজন নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায় বলে জানিয়েছেন।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান জানান, সংঘর্ষের ওই ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলা হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close