গোদাগাড়িশিরোনাম

গোদাগাড়ীতে সাংবাদিকের উপর সন্ত্রাসী হামলা

ষ্টাফ রির্পোট : রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে রোববার বেলা ১১টার দিকে উপজেলা চত্বরে স্থানীয় সাংবাদিক আব্দুল বাতেনকে পিটিয়ে জখম করেছে দুইজন সন্ত্রাসী। তাকে গোদাগাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
হামলাকারি দুই সন্ত্রাসী আমিন ও সালাইদ্দিনকে সনাক্ত করেছেন সাংবাদিক। আমিনের বাড়ি উপজেলার ভগবন্দপুর হাটপাড়া গ্রামে। আর সালাউদ্দিনের বাড়ি শ্রীমন্তপুর। তারা দুইজনের মাদক কারবারের সঙ্গে জড়িত বলে জানা গেছে। তবে তাদের সঙ্গে তার কোন পূর্বশত্রুতাও নেই বলে জানিয়েছেন বাতেন।
আব্দুল বাতেন (২৯) গোদাগাড়ী উপজেলার আরিজপুর গ্রামের মাজেদ আলীর ছেলে। তিনি দৈনিক যায়যায়দিন, একাত্তর টেলিভিশনের উপজেলা সংবাদদাতা এবং ঢাকা থেকে প্রকাশিত অনলাইন নিউজ পোর্টাল পূর্বপশ্চিম ও রাজশাহীর অনলাইন নিউজ পোর্টাল পদ্মাটাইমস২৪.কম এর গোদাগাড়ী উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত।
তিনি জানান, বেলা ১১টার দিকে আমিন নামে একজন তাকে মোবাইল করে কথা আছে বলে উপজেলা পরিষদের গেটে ডেকে নেন। সেখানে যাওয়া মাত্রই আমিন বলে আমার পিছনে লেগেছেন কেন বলেই মারপিট শুরু করে। আমিন ও তার সহযোগি সানাউল্লাহসহ তিনজন মিলে লাঠি ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে তাকে জখম করে। এ সময় তার চিৎকারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম এসে তাকে উদ্ধার করে।  উপজেলা চেয়ারম্যানকে দেখে তারা পালিয়ে যায়। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান তাকে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে।
বাতেন বলেন, আমিন ও সালাইদ্দিন আমার মুখ চেনা পরিচিত। তাদের সঙ্গে তার কোন পূর্বশত্রুতাও নেই। সরল বিশ্বাসে আমি সেখানে গিয়েছি। কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই তারা কেন আমার উপর হামলা করেছে তা জানা নেয় বলে জানান তিনি।
গোদাগাড়ী মডেল থানার পরিদর্শক হাসমত আলী বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থাল পরিদর্শন করা হয়েছে। এছাড়াও হাসপাতালে গিয়ে আহত সাংবাদিক আব্দুল বাতেনের সঙ্গে কথা বলে হামলাকারিদের সক্তাক্ত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close