উন্নয়ন বার্তা

হলিডে ক্যাম্প: বাল্যবিবাহ, মাদক, মুখস্ত, মিথ্যাকে বর্জনের শপথ করলেন চারঘাটের শিক্ষার্থীবৃন্দ

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ বাল্যবিবাহ, মাদক, মুখস্ত, মিথ্যাকে বর্জনের শপথ করলেন রাজশাহীর চারঘাট উপজেলা ৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানেরর একদল শিক্ষার্থী। উপজেলা প্রশাসন চারঘাট ও দি হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশ রাজশাহী অঞ্চলের পরিচালনায় হার চয়েজ কর্মসূচীর সহযোগিতায় হলিডে ক্যাম্প অনুষ্ঠানে এ শপথ করেন শিক্ষার্থীরা।

চারঘাট উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ৮ আগস্ট ২০১৯ দিনব্যাপী হলিডে ক্যাম্প শুরু হয় জাতীয় সংগীতের মধ্যদিয়ে। চারঘাট উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জয়নাল আবেদিনের সভাপতিত্বে এবং দি হাঙ্গার প্রজেক্ট রাজশাহী সমন্বয়কারী সুব্রত কুমার পালের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চারঘাট উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আনিসুর রহমান। আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে এসময় উপস্থিত ছিলেন চারঘাট উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. মফিজুল ইসলাম, সরদহ সরকারি কলেজের সহকারি অধ্যাপক মো. মাজদার রহমান, চারঘাট এম.এ. হাদি কলেজের অধ্যক্ষ মো. সাহাজ উদ্দিন আহমেদ, পেভ অ্যাম্বাসেডর মো. সাইফুল ইসলাম বাদশা, চারঘাট মহিলা কলেজের সহকারি অধ্যাপক এস.এম.
মোজাম্মেল হক। দি হাঙ্গার প্রজেক্ট রাজশাহী আঞ্চলিক সমন্বয়কারী মো. মিজানুর রহমান এ সময় স্বাগত বক্তব্য রাখেন। উপজেলা নিবার্হী অফিসার অনুষ্ঠানে উপস্থিত জরুরি কাজে চারঘাটের বাইরে থাকায় সহকারি কমিশনারের (ভূমি) মাধ্যমে তিনি অংশগ্রহণকারী সকলকে শুভেচ্ছা জানান।

হলিডে ক্যাম্প আয়োজনের উদ্দেশ্য ছিলো কন্যাশিশুদের জন্য নিরাপদ বিদ্যালয় ক্যাম্পেইনের আওতায় চারঘাট উপজেলার ৮ টি বিদ্যালয়ের ইয়ূথ ইউনিটের সদস্যদেরকে সংগঠিত করা এবং সম্পর্কযুক্ত কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে গিয়ে বিগত বছরগুলোতে তাদের অর্জন, চ্যালেঞ্জ এবং চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার কৌশলসমূহ পরস্পরের সাথে বিনিময় করার মধ্য দিয়ে তাদেরকে গতিশীল করে তোলা। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চারঘাট উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আনিসুর রহমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, নিজের আলোয় আলোকিত হয়ে নিজেকে গড়ে তুলতে হবে। এজন্য অংশগ্রহণকারীদের বই পড়ার উপর জোর দেন। সেই সাথে একজন সুনাগরিক হয়ে উঠার আহ্বান জানান। শিক্ষার্থীদের মানবসম্পদে পরিণত হওয়ারও আহ্বান জানান।

আমন্ত্রিত অতিথির বক্তব্যে পেভ অ্যাম্বাসেডর মো. সাইফুল ইসলাম বাদশা অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের সবসময় ইতিবাচক চিন্তা করার আহ্বান জানান। এবং বলেন প্রত্যেককে ইতিবাচক মানুষ হলেই সমাজকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব। সরদহ সরকারি কলেজের সহকারি অধ্যাপক মো. মাজদার রহমান বলেন, সমাজে সত্যিকারের মানুষ প্রয়োজন। আমি মনে করি এই তরুণ প্রজন্মই পারবে সমাজকে এগিয়ে নিতে। উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. মফিজুল ইসলাম, শিক্ষার্থীদের প্রত্যেকের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনের আহ্বান জানান। পিতামাতার প্রতি আদেশ পালন করে চলার আহ্বানও জানান।

সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জয়নাল আবেদিন বলেন, দি হাঙ্গার প্রজেক্ট নিরাপদ গড়ে তুলতে যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে এটি সত্যিই প্রয়োজন ছিল। সরকারি-বেসরকারি সকলের সহযোগিতার মাধ্যমেই একটি মানসম্মত শিক্ষা অর্জন করা সম্ভব। তাহলে একদিকে আমাদেও টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত হবে , অন্যদিকে একটি সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে গড়ে উঠবে আমাদের প্রিয় বাংলাদেশ। প্রকৃত মানুষ হওয়ার আহ্বানও জানান।

ইয়ূথ এন্ডিং হাঙ্গারের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ইউনিট সদস্যরা বলেন, এই বিশ্বটাকে আমরা জয় করতে চাই। আর সেজন্যে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট আমাদের প্রস্তুত করতে পাশে আছে, আমরা মনে করি এই সহায়ক পরিবেশ আমাদের স্বপ্ন পূরণে কাজে আসবে। দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে বক্তব রাখেন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষকবৃন্ধ। সেই সাথে পুরো দিনটিকে কাজে লাগান শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক কার্যক্রম উপস্থাপন, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে গম্ভীরা, নৃত্য, সংগীত, এবং ঝিকরা উচ্চ বিদ্যালয় এবং বনকিশোর উচ্চ বিদ্যালয় ইয়ূথ ইউনিটের অংশগ্রহণে বিতর্ক প্রতিযোগিতা। প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় বনকিশোর উচ্চ বিদ্যালয়। অনুষ্ঠানে ৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন অনুষ্ঠানের অতিথিবৃন্দ এবং বিতার্কিদের হাতে পুরস্কার হিসেবে বই তুলে দেয়া হয়।
বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close