শিরোনাম-২স্বাস্থ্য বার্তা

ভিনিগারের সাতকাহন

বরেন্দ্র বার্তা ডেস্ক: ভিনিগার ছাড়া চাইনিজ রান্না মোটে ভাবা যায় না। এমনকি বাঙালি রান্নাতেও ভিনিগারের ব্যবহার ভালই বেড়েছে। রগরগে মাংস বানাচ্ছেন, এ দিকে ফ্রিজ খুলে দেখলেন মোটে দই নেই। তাতে কী! ভিনিগার তো আছে। সত্যি রান্নার স্বাদ বাড়াতে ভিনিগার একাই ওস্তাদ। তবে শুধুই রান্নাই নয়, ভিনিগার কিন্তু আরও নানা ভাবে ব্যবহার করা যায়‚ বিশেষত বাড়ি-ঘর পরিষ্কার রাখতে ভিনিগারের জুড়ি মেলা ভার | চট করে দেখে নিই, ভিনিগার কী কী অসাধ্য সাধন করতে পারে।
১) খুব সহজেই যে কোনও জং ধরা জিনিসপত্রকে আবার ঝকঝকে করে তুলতে পারে ভিনিগার | এর জন্য একটা বড় পাত্রে সাদা ভিনিগার ঢেলে, তাতে জং ধরা জিনিস সারা রাত ভিজিয়ে রেখে দিন। সকালে বাসন ধোওয়ার স্পাঞ্জ দিয়ে ঘষে ধুয়ে ফেলুন | দেখবেন জং উধাও হয়ে গেছে |
বড় সরঞ্জামের ক্ষেত্রে একটা কাপড় ভিনিগারে ভাল করে ভিজিয়ে তা সরঞ্জামের গায়ে রাতভর জড়িয়ে রাখুন | সকালে একই পদ্ধতিতে ঘষে ধুয়ে নিন |
২) জুতো, বিশেষত চামড়ার জুতো পরিষ্কার করতে ভিনিগারের বিকল্প নেই | এর জন্য একটা স্প্রে বোতলে জল ভরুন | এতে ৩-৪ টেবল চামচ ভিনিগার মেশান | বোতল ভাল করে ঝাঁকিয়ে জুতোর গায়ে স্প্রে করুন | একটা পরিষ্কার কাপড় দিয়ে জুতো মুছে নিন | দেখবেন নতুনের মত চকচক করছে |
৩) মেঝে‚ তাক পরিষ্কার করার সলিউশন ঘরেই তৈরি করে নিতে পারেন | এর জন্য দরকার হবে ভিনিগার এবং অ্যান্টি মাইক্রোবাল এসেনসিয়াল অয়েল | ভিনিগার সহজেই দাগ ছোপ তুলে দেবে | অন্যদিকে অ্যান্টি মাইক্রোবাল এসেনসিয়াল অয়েল ক্ষতিকারক ভাইরাস ও জীবাণু দূরে রাখবে |
৪) অনেকেই বাগান করতে ভালবাসেন | কিন্তু নিয়মিত ব্যবহারের ফলে বাগানের সরঞ্জামে নোংরা জমে যায় | তবে ভিনিগার থাকতে আর চিন্তা কীসের! ভিনিগার স্প্রে করে একটা পুরনো ব্রাশ দিয়ে ভাল করে ঘষে নিলেও নোংরা নিমেষে দূর হয়ে যাবে |
৫) বাড়িতে পোকামাকড়ের উপদ্রব কমাতেও সাহায্য নিতে পারেন ভিনিগারের | এর জন্য লাগবে অ্যাপেল সিডার ভিনিগার | কয়েকটা ঢাকনা খোলা বোতলে এই ভিনিগার আর কয়েক ফোঁটা ডিশ ওয়াশ দিয়ে বাড়ির চারপাশে রেখে দিন | অ্যাপেল সিডারের গন্ধে আকৃষ্ট হয়ে পোকামাকড় বোতলে গিয়ে ঢুকবে | কিন্তু সাবান থাকার ফলে আর পালাতে পারবে না |
৬) নিয়মিত ব্যবহারের ফলে স্টিলের বাসন ম্যাড়মেড়ে হয়ে যায় | স্টিলের বাসন আবার চকচকে করে তুলতে খানিকটা জলে কয়েক চামচ ভিনিগার মিশিয়ে তাতে বাসন ভিজিয়ে রাখুন | বাসন থেকে আঁশটে গন্ধ দূর করতেও ভিনিগার ব্যবহার করতে পারেন | একই রকমভাবে স্টিলের সিঙ্ক বা বাথরুমের কলও পরিষ্কার রাখতে পারেন |
৭) বর্ষাকালে অনেক সময় বারান্দার কোণায়‚ সিঁড়িতে শ্য়াওলা জমে | শ্য়াওলা ধরা অংশে ভিনিগার স্প্রে করুন | দেখবেন আর শ্য়াওলা হবে না |
৮) কাঠের আসবাবে ছোটখাটো আঁচড়ের দাগ পরলে তাও ভিনিগারের সাহায্যে তুলে ফেলতে পারেন | এর জন্য তিন ভাগ অলিভ অয়েল আর এক ভাগ ভিনিগার মিশিয়ে একটা নরম পরিষ্কার কাপড় দিয়ে দাগ মুছে নিন | দেখবেন আর কোনও দাগ দেখতে পাচ্ছেন না।
৯) টয়লেট পরিষ্কারের জন্যেও ভিনিগার ব্যবহার করতে পারেন | দোকানে যে সব টয়লেট ক্লিনার পাওয়া যায় তাতে ক্লোরিন ব্লিচ থাকে | ঘরে ছোট বাচ্চা বা পোষ্য থাকলে, এই ব্লিচ না ব্যবহার করাই ভাল। তার পরিবর্তে ভিনিগার ব্যবহার করুন. বাথরুম পরিষ্কারও হবে আর কারও কোনও ক্ষতিও হবে না।
১০) চশমা ঝকঝকে পরিষ্কার রাখতে এক ফোঁটা ভিনিগার দিয়ে কাচ পরিষ্কার করুন |বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close