খেলা

একজন দেশি আইকন আর দুজন বিদেশির নিশ্চয়তা চায় ফ্র্যাঞ্চাইজিরা

খেলা ডেস্ক: আগেই জানা, এবার বিপিএলে সব কিছু নতুন ভাবে শুরু করতে বলা হয়েছে। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সাথে আগে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সাথে নতুন করে চুক্তি করতে হবে। তারপর দল সাজানোসহ অন্য কাজকর্মে হাত দিতে হবে।
সেই কাজকর্মের আগে দুই পক্ষের ঘটা করে বসার কথা ছিল। কিন্তু হয়নি। আজ সারা দিন ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সাথে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের কর্তাদের বৈঠক হবার কথা ছিল। সেটাও হয়নি। কেন হয়নি?
তবে কি বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সাথে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের কোন মতের গড়মিল হয়েছে? ফ্র্যাঞ্চাইজি আর বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের যৌথ সভা হঠাৎ হলো না যে?
নাহ, বড়সড় ঝামেলা নেই। জানা গেছে, ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোই সময় চেয়ে একদিন পিছিয়ে দেয়ার অনুরোধ করেছিল। বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল তা মেনেও নিয়েছে।
আজকের বৈঠক হবে কাল ১৯ আগস্ট সোমবার। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, কাল দুপুর ২টায় ঢাকা ডায়নামাইটস ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সাথে বসবে বিপিএল কর্তৃপক্ষ। তারপর বিকেল সাড়ে ৩টায় হবে খুলনা টাইটান্স আর বিকেল ৫টায় রাজশাহীর সঙ্গে বৈঠক। এরপর ২০ ও ২১ আগস্ট পর্যায়ক্রমে অন্য দলগুলোর সাথেও বৈঠক করবে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল।
আগেই বলা হয়েছে, বিপিএল আয়োজক ও ব্যবস্থাপক কমিটি ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সাথে বসছে মূলত চুক্তি, নিবন্ধন, প্লেয়িং কন্ডিশন আর বাইলজসহ আনুষাঙ্গিক বিষয়গুলো নিয়ে। সেখানে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের পক্ষ থেকে যে নিয়ম নীতি বেঁধে দেয়া হবে, তা নিয়েই কথা হবে এবং শেষ পর্যায়ে গিয়ে এটা রফা হবে।
কিন্তু আজ মিললো এক নতুন তথ্য। তা হলো, বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সাথে বসার আগে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো ঠিক আগাম শর্ত জুড়ে না দিলেও একটি আবেদন করবে।
ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর কথা, অন্তত একজন দেশি আইকন বা এ প্লাস ক্যাটাগরির তারকা ক্রিকেটার এবং দুজন করে বিদেশি ক্রিকেটার আগে ভাগে দলে ভেড়ানোর বা রেখে দেয়ার বিধান করতে হবে। তাতে করে দলগুলোকে আর শূন্য থেকে শুরু করতে হবে না। আর তা না হলে যদি নতুন করে চুক্তির পর সব কিছুই নতুন ভাবে করতে হয়, তাহলে তো আর কিছুই থাকবেনা। একদম নতুন করে শুরু করতে হবে।
বিশেষ কোন ক্রিকেটারের সাথে কথা বলা, কাউকে কাউকে অগ্রীম অর্থ দেয়া এবং বিদেশি ক্রিকেটারদের সাথে কথা চূড়ান্ত করা-সবই বিফলে। এতে করে দল সাজানোর কাজটাও এলোমেলো হয়ে যাবে। তার চেয়ে যদি আইকন বা এ প্লাস ক্যাটাগরির একজন আর দুজন বিদেশি ক্রিকেটারকে আগে রেখে নতুন ভাবে নিলামে অংশ নিতে হয়, তাতেও সমস্যা নেই। সেটাও দল সাজানোর প্রথম ধাপ বলে পরিগণিত হবে। আর কেউই যদি না থাকে, সবই যদি পরে নিতে হয়, তাহলে তো আর কিছুই থাকে না।
এখন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিল তা মানে কিনা, মেনে নিলে সাকিব যে ঢাকা ডায়নামাইটস ছেড়ে রংপুর রাইডার্সে গিয়েছিলেন, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের মায়া কাটিয়ে তামিম ইকবাল খুলনা টাইটান্সে আর চিটাগাং ভাইকিংস ফেলে মুশফিকুর রহীমের কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সে যোগ দেয়া বহাল থাকবে। সেইসঙ্গে বিদেশি কোটায় খুলনা টাইটান্স যে শেন ওয়াটসনকে চুক্তিবদ্ধ করেছিল, সেটাও বহাল থাকবে। দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত কি হয়! বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close