মহানগরশিরোনাম

শেখ হাসিনার ট্রেনে হামলা মামলার আসামি হাকিম উদ্দিনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক : ১৯৯৪ সালে পাবনার ঈশ্বরদীতে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনে গুলি ও বোমা হামলা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত এক আসামির মৃত্যু হয়েছে। তার নাম হাকিম উদ্দিন (৬০)। তিনি যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত কয়েদি হিসেবে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দী ছিলেন।
বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাকিম মারা যান। হাকিমের বাড়ি ঈশ্বরদীর পশ্চিম টেংড়ি বাবুপাড়া গ্রামে। তার বাবার নাম মহসিন আলী।
রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার হাবিবুর রহমান জানান, হাকিম দীর্ঘ দিন ধরেই হৃদরোগে ভুগতেন। তার ওপেন হার্ট সার্জারিও করা ছিল। গত ১০ আগস্ট তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে রামেক হাসপাতালের প্রিজন সেলে পাঠানো হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে।
জেলার আরও জানান, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনে হামলা মামলার রায় হয় এ বছরের ৩ জুলাই। এরপর ৯ জুলাই কয়েদি হাকিমকে পাবনা কারাগার থেকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছিল। তিনি জানান, মৃত্যুর পর রামেকের মর্গে হাকিমের মরদেহের ময়নাতদন্ত করা হচ্ছে। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।
প্রসঙ্গত, ১৯৯৪ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর ঈশ্বরদীতে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনাকে বহনকারী ট্রেনে গুলি ও বোমা হামলা হয়। এ মামলায় পাবনার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. রুস্তম আলী নয়জনকে মৃত্যুদণ্ড, ২৫ জনকে যাবজ্জীবন এবং ১৩ জনকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেন। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close