অর্থ ও বাণিজ্যশিরোনাম-২

মোট সম্পদের ৩ শতাংশ হারিয়েছেন শীর্ষ ধনীরা

অর্থ-বাণিজ্য ডেস্ক: ব্রেক্সিট নিয়ে ইউরোপে অস্থিরতা, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যকার শুল্ক যুদ্ধসহ নানা কারণে কঠিন সময় পার করছে বিশ্ব অর্থনীতি। অনেক দেশেই উৎপাদন কমে আসায় ধুঁকছে বিভিন্ন শিল্প। লোকসান পোষাতে বড় বড় শিল্প প্রতিষ্ঠানে চলছে কর্মী ছাঁটাই। ফলে এরই মধ্যে বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দাবস্থার প্রভাব পড়েছে সাধারণ মানুষের ওপর। অবশ্য এমন পরিস্থিতিতে স্বস্তিতে নেই শীর্ষ ধনকুবেররাও।
সম্প্রতি বাণিজ্যিক পরামর্শক সংস্থা ক্যাপজেমিনি তাদের ওয়ার্ল্ড ওয়েলথ রিপোর্টে জানিয়েছে, ২০১৮ সালে বিশ্বের শীর্ষ ধনীরা বাজার অস্থিতিশীলতার কারণে তাদের মোট সম্পদের ৩ শতাংশ বা ২ লাখ কোটি ডলার মূল্য হারিয়েছেন, যা মূলত তাদের মালিকানাধীন কোম্পানি/সম্পদের বাজারমূল্য হারানোর মাধ্যমেই ঘটেছে।
প্রতিবেদনে জানানো হয়, উল্লেখিত সময়ে সবেচেয়ে বেশি সম্পদমূল্য হারিয়েছেন এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের ধনীরা। এই অঞ্চলের মোট উচ্চসম্পদ মূল্যের ব্যক্তিদের (হাইনেট ওয়েলথ ইনডিভিজুয়ালস) মোট সম্পদের ৪ দশমিক ৮ শতাংশ দাম কমেছে, যে ক্ষতির আর্থিক মূল্য প্রায় ১ লাখ কোটি ডলার।
অবশ্য অন্যান্য অঞ্চলের ধনকুবেররাও এই সম্পদহানি থেকে মুক্তি পাননি। ২০১৮ সালে ইউরোপে ধনীরা তাদের মোট সম্পদের ৩ দশমিক ১ শতাংশ বা ৫০ হাজার কোটি ডলার মূল্য হারান। এর পেছনে ব্রেক্সিট নিয়ে ইউরো জোনের বিনিয়োগ অনিশ্চয়তা বড় প্রভাব রেখেছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। উন্নত দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি সম্পদ হারিয়েছেন মার্কিন ধনীরা, যার পরিমাণ প্রায় ১.১ শতাংশ বা ২০ হাজার কোটি ডলার। যদিও মার্কিন অর্থনীতির বৃহৎ পরিসর এবং ধাক্কা সামলানোর সক্ষমতার কারণেই দেশটির পুঁজিবাজারে এর খুব বেশি প্রভাব পড়েনি। এদিক থেকে অপেক্ষাকৃত ভালো অবস্থানে আছেন মধ্যপ্রাচ্যের ধনীরা। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close