চারঘাটশিরোনাম-২

চারঘাটে বেড়েছে চুরি ও ছিনতাই

নিজস্ব প্রতিবেদক, চারঘাট : রাজশাহীর চারঘাটে হঠাৎ করেই বেড়েছে চুরি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা। এক রাতেই তিনটি ভ্যান ছিনতাই ও চারঘাট বাজারে একাধিক চুরির ঘটনায় উদ্বিগ্ন এলাকাবাসী।
জানা যায়, সোমবার ভোর ৪টার দিকে চারঘাট পুঠিয়া সড়কের বঙ্গবন্ধু মোড়ের উত্তরে বুড়ির বটতলার নামক স্থানে উপজেলার বালুদিয়ার গ্রামের তোছের আলীর ছেলে রফিকুল ইসলাম, ইয়াজ উদ্দিনের ছেলে সৈয়দ আলী ও মহিমুদ্দিনের ছেলে মজিবুর রহমান এই তিন ভ্যান চালকরা ভ্যানে পাটবোঝাই করে ঝলমলিয়া হাটের উদ্দেশ্য রওনা দেয়।
এসময় চারঘাট-পুঠিয়ার সড়কের বুড়ির বটতলা নামক স্থানে পৌছলে ওৎ পেতে থাকা ছিনতাইকারীরা ভ্যানের গতিরোধ করে ভ্যাান চালকদের মারপিট করে ভ্যান নিয়ে পালিয়ে যায়। ভ্যানচালকদের চিৎকারে স্থানীয় লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে।
এ ছাড়াও রোববার দিনগত রাতে চারঘাট বাজারের সাদিয়া এন্টারপ্রাইজ দোকানের তালা ভেঙ্গে চুরির চেষ্টা, তার একদিন আগে শুক্রবার রাতে আজমল হকের দোকানে একই কৌশলে চুরির চেষ্টা করে।
এদিকে ৬ই আগস্ট দিনগত রাতে উপজেলার বনকিশোর উচ্চ বিদ্যালয় কক্ষে তালা ভেঙ্গে ল্যাপটপ ও দুপুরে চারঘাট বাজার থেকে ভ্যান চুরি হয়। ৩০ জুন চারঘাট বাজারের চায়না ম্যানসন আব্বাসের বাসায় চুরি হয়। ৭ আগস্ট দিনগত রাতে ডাকরা গ্রামের ইউসুফ আলীর বাড়ি থেকে একটি মোটরসাইকেল চুরি হয়।
এছাড়াও ১৫ই আগস্ট দুপুরে দিবালোকে চারঘাট বাজারের বাধন বেকারীতে চুরি হয় এবং পরদিন রাতে চারঘাট বাজারের তোফাজ্জল হোসেনের চাউলের আড়ৎ চুরি হয়।
এ ব্যাপারে চারঘাট মাদক প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি সাইফুল ইসলাম বাদশা বলেন,গত এক মাসে চারঘাটে চুরির ঘটনা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।প্রশাসনের কার্যকর কোনো পদক্ষেপ না থাকার কারনেই এসব ঘটনা বাড়ছে। চারঘাট বাজারে চুরির পেছনে একটা কিশোর গ্যাং জড়িত আছে।এরা মাদকের টাকা জোগাড় করতেই এসব চুরি ও ছিনতাই এ লিপ্ত হচ্ছে বলে জানান তিনি।
এ বিষয়ে মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ সমিত কুমার কুন্ডু বলেন, সবগুলো ঘটনাতে আমাদের কাছে অভিযোগ আসেনি।তবে যেগুলোতে অভিযোগ পেয়েছি তাৎক্ষণিক আমরা ব্যবস্থা গ্রহন করেছি।এ ব্যাপারে আসামী আটক করা হয়েছে, আবার মাদকের সাথে সম্পৃক্ত চুরি গুলো তে শাস্তির ব্যবস্থাও গ্রহন করা হয়েছে।তবে মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের কঠোর অভিযান অব্যাহত আছে।এতে ধীরে ধীরে মাদকের সাথে সম্পৃক্ত চুরি গুলো কমে যাবে বলে জানান তিনি। বরেন্দ্র বার্তা/মোসই/অপস

Close