বাগমারাশিরোনাম-২

বাগমারায় ভয়ংকর হয়ে উঠেছে বিন্যাবন ঘটছে দূর্ঘটনা

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর বাগমারায় বিভিন্ন সড়কে বিন্যাবনে (কাশ ঝাড়) যাতায়াত বিপদজনক হয়ে পড়েছে। অধিকাংশ সড়কে চলাচলকারী বিভিন্ন যানবাহনের চালকদের এই বিন্যাবনের কারণে ভয়ানক দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বিশেষ করে এসব রাস্তার ঝুকিপূর্ণ বাঁকগুলোতে অবৈধ বিন্যাবন চাষে প্রায় যানবাহনের দূর্ঘটনা ঘটছে।
সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ভবানীগঞ্জ থেকে তাহেরপুর-কেশরহাট এবং ভবানীগঞ্জ থেকে বড়বিহানালী রাস্তায় সবচেয়ে বিন্যাবন বেশি। এছাড়া ভবানীগঞ্জ থেকে মোহনগঞ্জ ও সইপাড়া হয়ে রাজশাহীর রাস্তায় বিন্যাবন রয়েছে। এসব রাস্তা দিয়ে হরদম চলাচল করছে মোটরসাইকেল, আটো, বাস, ট্রাকসহ ভারী যানবাহন। মুষ্টিমেয় ব্যক্তিরা এসব বিন্যাবন রোপণ করে তা থেকে সামান্যই ফায়দা পেলেও ওই সব বিন্যাবনের কারণে সৃষ্ট দূর্ঘটনায় ঝড়ে পড়ছে অমূল্য জীবন।
ভবানীগঞ্জ বাজারের বনিক সমিতির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম হেলাল জানান, এসব বিন্যাবনের কোন বৈধতা নেই। সরকারি রাস্তার দু’ধার যে যেমন পারে দখল করে বিন্যাগাছের শাখা রোপণ করে রাখে। পরে বৃষ্টি নামলে ওই বিন্যাবনের শাখা বিশাল গাছে পরিনত হয়। এক সময় এসব বিন্যাগাছ পরিপক্ক হলে তা কেটে রোদে শুকিয়ে পানবরজের ছাউনির কাজে ব্যবহার করা হয়। বিন্যাবন রাস্তা ছাড়া পতিত কিংবা নদীর ধারে ব্যাপক চাষ হয়ে থাকে। অথচ সামান্য লাভের আশায় কথিপয় স্বার্থান্বেষী মহল সরকারি রাস্তার দু’ধার দখল করে বিন্যাগাছ রোপণ করে দূর্ঘটনার আশংকা বাড়িয়ে তুলেছে। ব্যাটারী চালিত অটো চালক জামেদুর রহমান জানান, বিন্যাবনের কারণে গাড়ি চালাতে তাদের প্রচন্ড অসুবিধা হয়। ওই সময় রানিং গাড়ির হর্ন বাজালেও তা খুব একটা বুঝা যায় না। তখন উভয় গাড়ীর মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে প্রতিনিয়ত। সম্প্রতি উপজেলার বাসুপাড়ায় এক বাঁকে সড়ক দুর্ঘটনায় পুলিশ ফাড়ির এক এসআই আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এমনি ভাবে হামিরকুৎসা হাট থেকে বাইসাইকেলে বাড়ি ফেরার পথে গোয়ালকান্দি এলাকার রাস্তার এক বাঁকে বিন্যাবনের কারণে মোটরসাইকেল আরোহীর সংঘর্ষ হয় চেউখালি গ্রামের কৃষক আনোআর দূর্ঘটনার গুরুত্বর আহত হন। পরে পথচারী ও পরিবারের লোকজন উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেলে নিয়ে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আনোয়ার মারা যায়। শুধু আনোয়ার নয় এই উপজেলার বিভিন্ন রাস্তার দু’পাশের বিন্যাবনের কারণে এমন দূর্ঘটনা ঘটছে অহরহ। বালানগর গ্রামের গাড়িচালক ফাহিম জানান, বাগমারা- সইপাড়া রাস্তা উপজেলার মধ্যে গুরুত্বপুর্ণ রাস্তায় দেউলিয়া মোড় স্লইজ গেট পার এমন অবস্থা রয়েছে সামনে কোন গাড়ি আসলে চমকে যায় হৃদপিন্ড। প্রতি নিয়তই ঘটছে দূর্ঘটনা। অথচ থানা ও উপজেলার এই গুরুত্বপুর্ণ সড়ক কেউ দেখার নেই। একই ভাবে গত বুধবার তাহেরপুর আইএফসি ব্যাংকের কর্মরত ব্যাংকার আব্দুল্লাহ এই প্রতিবেদকের উপস্থিতিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানান, তিনি তাহেরপুর থেকে বাসা ভবানীগঞ্জ ফিরছিলেন। দীর্ঘ পথে তার কোথাও তেমন সমস্যা হয়নি। অথচ শিবজাইটের আগে তাকে বহনকারি অটো চার্জার ভ্যান অপর একটি অটো গাড়িকে ক্রস করতে গিয়ে বিন্যাবনের কারণে মুখোমুখি ধাক্কা লেগে তাদের গাড়িটি উল্টে যায়। এতে তিনি অল্পের জন্য প্রানে বেঁচে গেলেও তিনি গুরুত্ব আহত হয়েছিলেন। এর পর তিনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিন্যাবনের ভয়াবহতার বিবরণ দিয়ে তা অপসারনের দাবি করেন। এছাড়া বিষয়টি তিনি জনসার্থে বিবেচনায় আমলে নিয়ে প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অবৈধ এসব বিন্যাগাছ অপসারনের ব্যবস্থা নিতে দাবী জানিয়েছেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকিউল ইসলাম জানান, বিভিন্ন সড়কে বিন্যাবনে যাতয়াত ব্যবস্থা বিপদজনক হয়ে পড়ায় তিনি উদ্বিগ্ন। বিষয়টি নিরশনে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও পৌরসভার মেয়রকে চিঠি দেয়া হয়েছে বিন্যাবন কাটার নির্দ্দেশ জারি করতে। এছাড়া বিনাবন ছাপ করতে ইউনিয়ন ও গ্রাম পর্যায়ে মাইকিং করা হয়েছে। প্রয়োজনে বিন্যাবন উজাড় করতে উপজেলা প্রশাসন সব রকম সহায়তা স্থানীয় চেয়ারম্যানকে দিবে বলে তিনি মত প্রকাশ করেছেন। বরেন্দ্র বার্তা/সরা/অপস

Close