মহানগরশিরোনাম

ছাত্রীর যৌন নিপীড়ন মামলায় বিএনপি নেতা গ্রেফতার

ষ্টাফ রির্পোট: রাজশাহীতে ছাত্রীর ওপর নিপীড়নের মামলায় বিএনপি নেতা কলেজ শিক্ষক সিরাজুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
গ্রেফতারকৃত সিরাজুল রাজশাহী মহানগরীর উপকণ্ঠ কাটাখালীর আদর্শ ডিগ্রি কলেজের ভূগোল বিভাগের শিক্ষক এবং রাজশাহী জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক।
তার বাড়ি কাটাখালী পৌরসভার শ্যামপুর নতুনপাড়া মহল্লায়। বৃহস্পতিবার দিনগত গভীর রাতে নিজ বাড়ি থেকে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।
কাটাখালী থানার ওসি জিল্লুর রহমান বলেন, কয়েক দিন আগে কলেজের একাদশ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম যৌন হয়রানি করেন। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে থানায় মামলা করেন ওই ছাত্রীর মা। এর পরই সিরাজুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। শুক্রবার তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান ওসি।
তবে শিক্ষক সিরাজুল ইসলামকে ফাঁসানো হচ্ছে বলে দাবি করেছেন জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম মোস্তফা মামুন।
তিনি বলেন, কাটাখালী পৌরসভা নির্বাচনে সামান্য ভোটে মেয়র আব্বাস আলীর কাছে পরাজিত হন সিরাজুল ইসলাম। আগামী নির্বাচনেও তিনি প্রার্থী হবেন। এ ছাড়া গত ২৫ জুলাই শ্যামপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সে নির্বাচনে মেয়র আব্বাস আলী ও সিরাজুল ইসলামের প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। এ নির্বাচনে আটটি পদেই সিরাজুল ইসলামের প্যানেল বিজয়ী হয়। এ নিয়ে মেয়র আব্বাসের সঙ্গে সিরাজুল ইসলামের দ্বন্দ্ব আরও বেড়ে যায়। তাই যৌন হয়রানির মিথ্যা নাটক সাজানো হচ্ছে।
মামুন বলেন, মেয়র আব্বাস আলী নিজের গাড়িতে করে ওই ছাত্রী এবং তার মাকে থানায় নিয়ে যান। এর পর মামলা করানো হয়। এই মামলা মিথ্যা দাবি করে মামুন গ্রেফতারকৃত শিক্ষকের মুক্তি দাবি করেন।
এ বিষয়ে কথা বলতে কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীর মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে বন্ধ পাওয়া যায়।
কাটাখালী থানার ওসি জিল্লুর রহমান বলেন, সত্য-মিথ্যা এখন কিছুই বলা যাচ্ছে না। তদন্তের পরই বিষয়টি বলা যাবে। অভিযোগ মিথ্যা হলে ওই শিক্ষক অব্যাহতি পাবেন। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close