নওগাঁশিরোনাম

মহাদেবপুরে ভূমি অফিসের কেরানীর বিরুদ্ধে অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ

মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর মহাদেবপুর ভূমি অফিসের কানাগগোর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দূর্নীতির উপযোগ উঠেছে। মহাদেবপুর বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন ৮০৮ দাগের ১নং খতিয়নের সরকারী সম্পত্তিতে প্রায় ৪১টি ঘরের মধ্যে ৬/৭ টা ঘর লাইন্সেন অনুমোদন ভুক্ত। সূত্রে প্রকাশ কানুনগগো ওইসব বাকী ঘর মালিকদের কাছ থেকে মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে ওইসব ঘরের অনুমোদনের সুপারিশ জেলা প্রশাসকের বরাবর প্রেরণ করেন।
হাইওয়ের পাশে ওইসব জায়গায় ঘর নির্মানের বিধান না থাকলেও সেই আইন মানছে না ওইসব অসৎ কর্মচারীগণ। এছাড়া ওইসব চান্দিনা জায়গায় ছাদ বিশিষ্ট ঘর বা দ্বিদল ভবন নির্মাণ করার বিধান না থাকলেও সেইসব জায়গায় দ্বিদল থেকে তৃতীয় তলা ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। সূত্রমতে ভূমি অফিসের অসৎ কিছু কর্মচারীদের যোগসাজসে এক শ্রেণীর সুবিধা বাদীরা ওইসব জায়গা লিজ নিয়ে মোটা অংকের শিকোরিটির বিনিময়ে দীর্ঘ দিন খেকে ভাড়া উত্তোলণ করে আচ্ছে যা আইন বহিভুক্ত। সরেজমিনে দেখা গেছে, ৭নং ঘরের মালিক হাফিজুল হক বকুল তার ঘর হোটেল ব্যবসায়ী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজুর নিকট ১০লক্ষ টাকা শিকোরিটি এবং প্রতি মাসে ৭ হাজার টাকায় ভাড়া দিয়েছেন। এছাড়া ৮ নং ঘর বাসষ্ট্যান্ড বনিক সমিতির সভাপতি মনিরুল হক মনি পান ব্যবসায়ী শ্রী বকুলের কাছে ৩ লক্ষ টাকা শিকোরিটি এবং প্রতি মাসে ৩ হাজার টাকায় ভাড়া দিয়েছেন,হাফিজুল হক বকুলের ভাই সদর ইউপি মেম্বার আব্দুর রাজ্জাক কাজল সেলুন ব্যবসায়ী ও ষ্টার টেলিকমকে দুটি ভাড়া দিয়েছেন। তদন্ত করলে ওইসব ভাড়ায় চালিত ঘরগুলো বের হয়ে আসবে। এব্যাপারে সহকারী (ভূমি)কমিশনার আসমা খাতুনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, ওইসব লিজকৃত ঘর মালিকেরা ভাড়া দিতে পারবে না এবং জরুরী ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। অপরদিকে কানাগগো শহিদুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি উৎকোষ গ্রহনের কথা অশ্বিকার করেন। এদিকে ভুক্ত ভোগীরা ওইসব ঘরগুলো লিজ বাতিল করে প্রকৃত দরিদ্র অসহায় ব্যবসায়ীদের ঘরগুলো দেয়ার জন্য জোর দাবী জানান। বরেন্দ্র বার্তা/মোমাআ/অপস

Close