সাহিত্য ও সংস্কৃতি

হুমায়ূন সিরাজের কবিতা ‘প্রভাতী’

রহস্য ঘেরা
প্রভাতের আলোকিত সূর্যের ঈগল
মায়াময়
নিদ্রা ভেঙ্গে শহরেরা জেগে কর্মব্যস্ততা
পাখিদের মুখরিত কলতানে
গুঞ্জরিত বাতাস বয়
নিদ্রা যেন নন্দিত কোন স্বপ্নপুরি
শহরের পথে ঠিকানায় জ্বলছে হরেক রকম
রঙিন বাতি
এখনও রয়েছে খোলা কোন আলোক সুরী
কোন মানুষেরা শহরের ব্যস্তময় পথে
সারছে আলাপ
কেন যেন কোথাও কেউ হচ্ছে হেনস্থা
প্রভাতের কোন হাটা পথে কেউ বিশুদ্ধ
বায়ু সেবন
হঠাৎ থামছে সকট
লাল হলুদ সবুজ বাতিতে মোরের রাস্তা
এপার ওপার যেন সবুজে ঘেরা বন
কোথাও মোড়গের ডাকে
আর চিলের ডানায় ভাসছে ঘুড়ি
হরেক রকম ফুলেরা বিরহের সুবাসে
সেখানে কারুকার্যময় কোন রঙ্গিন ঝুড়ি
কোন টোকাইরা খুঁজছে কাঙ্খিত বস্তু
রিক্সায় রিক্সায় বাসে বাসে
আর উৎছৃষ্ট কেন যেন কোন প্রাতের নাস্তা

কোথাও ঘুম যেন কারো হচ্ছে গাঢ়
প্রেমিকেরা খুজঁছে প্রেমিকদেরকে
মলিন ভালাবসা
ইচ্ছেরা তুলছে প্রকৃতির ছবি
ক্যামেরায় জুম
এ যেন কোন বঞ্চিত মানুষের অধিকারের গল্প
কোন অসম দ্বিবাহু সমকোন
নদীর চরে জেগে উঠছে আশা
সানে বাঁধানো পথের ধারে থেমে
দোতালা ট্রাম
দোকানে দোকোনে আলো জ্বলছে স্বল্পে
ঘরে ফিরছে ঘরমুখো কোন মানুষ
প্রাণের সঞ্চারে ঠাসা সেই বাসা
ফানুস উড়ছে
আর দোলনার কোন ভরে
তবুও কোন তরঙ্গ দৈর্ঘ্য
ত্রিমাত্রিক চিত্রপটে অল্প।।

Close