বাগমারাশিরোনাম-২

বাগমারায় যুবককে হাতুড়ি দিয়ে পেটানোর অভিযোগ

আব্দুল মতিন, বাগমারা প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়নের কুশলপুর গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এক যুবককে হাতুড়ি দিয়ে পেটার অভিযোগ ইঠেছে। আহত যুবককে স্থানীয়রা উদ্ধার করে প্রথমে হাটগাঙ্গোপাড়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা দেয় । পরবর্তীতে মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হলে সেখানেও তার অবনতি ঘটলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরো সার্জারী ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। এই ঘটনায় এলকায় উত্তজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহূর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটে যেতে পারে বলে আশংঙ্কা করছে এলাকাবাসি।
আহত ওই যুবকের নাম আশরাফুল ইসলাম (২৮) সে মান্দা উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের শিলগ্রাম দুবইলের আব্দুল মজিদের পুত্র । আহতের বাম কানে ক্ষতের চিহ্ন দেখা গেছে। আহতের ভাই তোফাজ্জল হোসেন জানান, একই গ্রামের সামাদ গংদের সাথে আমাদের পারিবারিক দ্বন্দ্ব চলে আসছে। গত বুধবার আমার ভাই রাজশাহী সিটিহাটে গরু ক্রয়ের উদ্যেশে যায়। ফেরার পথে বিকেল সাড়ে চারটার দিকে কুশলপুর (মংলার বাড়ী নিকট) পৌঁছা মাত্রই শিলগ্রাম দুবইলের হোসেনের পুত্র আব্দুস সামাদের নির্দেশে একই গ্রামের হাবিবুর রহমান হবিরের পুত্র আরিফ (২৫), মতিনের পুত্র ইয়ানুছ (২২) হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে আমার ভাইকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে এবং টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয়।
সূত্র জানা যায়, আহত আশরাফুল ইসলামকে প্রথমে হাটগাঙ্গোপাড়ায় পল্লী চিকিৎক আলমগীর হোসেন প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নতর চিকিৎসার পরামর্শ দেন। পরবর্তীতে মোহনপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করালে সেখান তার অবনতি ঘটলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরো সার্জারী ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়।
এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে আশরাফুল ইসলামের ভাই তোফাজ্জল হোসেন সংবাদ কর্মীদের জানিয়েছেন।
মারামারির ঘটনা যেন পত্রপত্রিকায় না ছাপানো হয়, সে জন্য আব্দুস সামাদ এক সংবাদ কর্মীকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়।
এব্যাপারে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে হাটগাঙ্গোপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ (পুলিশ পরিদর্শক) হীরেন্দ্রনাথ জানান, এ বিষয়ে কেউ আমার কাছে অভিযোগ নিয়ে আসে নাই।
অভিযোগ পাওয়া গেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে । বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close