গোদাগাড়িশিরোনাম

পরিকল্পিত উন্নয়ন ও রুপকল্প বাস্তবায়নে কাঁকনহাট পৌরসভায় মতবিনিময় সভা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কাঁকনহাট পৌরসভার পরিকল্পিত উন্নয়ন ও রুপকল্প বাস্তবায়ন সম্পর্কে আজ রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। কাঁকনহাট অডিটরিয়ামে কাঁকনহাট পৌরসভার আয়োজনে সভায় সভাপতিত্ব করেন কাঁকনহাট পৌর সচিব রবিউল ইসলাম। প্রধান অতিথি ছিলেন কাঁকনহাট পৌর মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ। সভা পরিচালনা করেন পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী নোমান পারভেজ। বিশেষ অতিথি ছিলেন কাঁকনহাট পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবীর, পৌর প্যানেল মেয়র আজাহার আলী, মুক্তিযোদ্ধা এস.এম মহসিন আলী খান, পৌর কাউন্সিলর গোলাম মোর্তুজা শেখ, আমিরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর কবীর, সাদেকুল সেলিম, সেলিম আহম্মেদ, লুৎফর রহমান বিশু, আম্বিয়া বেগম, শাহনাজ বেগম, পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম জিয়াউল হক, মুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমান, আব্দুল মালেক ও আলী আকবর।

আরো উপস্থিত ছিলেন কাঁকনহাট পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন শওকত, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুর রহমান বকুল, ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি শরীফ মোল্লা, কৃষকলীগ সভাপতি কল্লোল মোল্লা, যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, কাঁকনহাট ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন দেওয়ান, পৌর মহিলা লীগের সভাপতি আশরাফুন নেসা পরি ও সাধারণ সম্পাদক মর্জিনা খাতুনসহ পৌর আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী ও ৯টি ওয়ার্ডের দলমত নির্বিশেষে সাধারণ জনগণ।

উপস্থিত জনগণ নিজ নিজ ওয়ার্ডের উন্নয়নমূলক কার্যক্রম সম্পর্কে তুলে ধরেন। সেইসাথে ওয়ার্ড পর্যায়ে আরো যে সকল উন্নয়নমূলক কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা প্রয়োজন তা তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, ২০০২ সাল থেকে এপর্যন্ত পৌরসভার বিভিন্ন ধরনের উন্নয়ন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে তৃতীয় শ্রেণি থেকে পৌরসভাকে প্রথম শ্রেণিতে রুপান্তার করা হয়েছে। এছাড়াও মাস্টার ড্রেন ও রাস্তা নির্মান, আলোকসজ্জা, শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন, খেলাধুলার প্রসার, প্রতিটি বাড়িতে বিদ্যুতায়নের ব্যবস্থা, গভীর নলকুপের সাহায্যে খাবার পানি সরবরাহ, পয়নিস্কাশনের ব্যবস্থা ও গোরস্থানের উন্নয়নসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের ইতোমধ্যে উন্নয়ন করা হয়েছে। বিভিন্ন ক্লাব প্রতিষ্ঠা, পৌর ভবন নির্মান করা হয়েছে। জমি না পাওয়ার কারেন ২৫০ শয্যা হাসপাতাল কাঁকনহাটে প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হয়নি।

আগামীতে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার জন্য হাসপাতাল নির্মান, স্টেডিয়াম প্রতিষ্ঠা, আধুনিক মার্কেট স্থাপন, আরো শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের  উন্নয়নসহ নির্বাচনী ইস্তেহার অনুযায়ী সকল কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হবে। তিনি বলেন, এতোদিনে কোন কাজই অবশিষ্ঠ থাকতনা। একজন কাউন্সিলর ও তাঁর দোসরদের কারনে কাঁকনহাটবাসি সকল প্রকার সেবা থেকে এখন বঞ্চিত হচ্ছে। তবে ১-২ মাসের মধ্যেই এই অচল অবস্থা দূর হবে বলে তিনি বক্তৃতায় উল্লেখ করেন। সেইসাথে এই সকল স্বার্থান্বেষী ও উন্নয়নে বাধা প্রদানকারী খারাপ নেতা থেকে দূরে থাকতে এবং এদের প্রতিরোধ করার জন্য জনগণকে আহবান জানান মেয়র।
বরেন্দ্র বার্তা/ ফকবা/ নাসি

Close