নাটোরশিরোনাম-২

রাজশাহীতে বিএনপির মহাসমাবেশ: নাটোর থেকে রাজশাহীগামী সকল বাস চলাচাল বন্ধ

নাটোর জেলা প্রতিনিধি: রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় মহাসমাবেশকে কেন্দ্র করে নাটোর থেকে রাজশাহীগামী সকল বাস চলাচাল বন্ধ করে দিয়েছে মালিক সমিতি। রবিবার সকাল থেকে রাজশাহীগামী সকল ধরনের বাস চলাচল বন্ধ করে দেয় নাটোর বাস, মিনিবাস মালিক সমিতি। অঘোষিত এই ধর্মঘটে চরম ভোগান্তিতে পড়ে সাধারণ মানুষ।
এদিকে, সিংড়া বাস টার্মিনালে চেক পোস্ট বসিয়ে বিভিন্ন বাসে তল্লাশি চালাচ্ছে সিংড়া থানা পুলিশ। এছাড়া নাটোর শহরের বনবেলঘড়িয়া, প্রাণ কোম্পানীর গেট সহ বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়েছে আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরা। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে যানবাহনে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।
জানা যায়, রবিবার বেলা আড়াইটায় বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এই সমাবেশকে কেন্দ্র করে হঠাৎ করেই রবিবার সকাল থেকে বাস চলচাল বন্ধ করে দেয় মালিক সমিতি।
এতে করে উত্তরাঞ্চল এবং দক্ষিনাঞ্চল থেকে ছেড়ে আসা সকল বাস নাটোরের পুরাতন বাস টার্মিনাল এবং বড়হরিশপুর বাস টার্মিনালে যাত্রী নামিয়ে দিয়ে ফিরে যাচ্ছে।
অঘোষিত এই ধর্মঘটে চরম ভোগান্তিতে পড়িছে সাধারণ মানুষ। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস হওয়ার কারনে অফিসে যেতে ভোগান্তিতে পড়েছেন অনেকে। কেউ কেউ ব্যাটারি চালিত অটো রিকশায় রাজশাহী যাওয়ার চেষ্টা করছেন। তবে তিনগুণ ভাড়া আদায় করা হচ্ছে বলে অভিযোগ যাত্রীদের।
নাটোর পরাতন বাস টার্মিনাল এবং হরিশপুর বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, রাজশাহী যাওয়ার জন্য যাত্রীরা সকাল থেকেই রাস্তায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন। বাস না পেয়ে ব্যাটারি চালিত অটো রিকশায় যাওয়ার চেষ্টা করছেন কেউ কেউ।
কথা হয় বেসরকারী কোম্পানীতে চাকরি করেন হাবিব হোসেনের সাথে। তিনি বলেন, সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবস। কিন্তু হঠাৎ করে বাস বন্ধ থাকার কারনে যেতে পারছিনা। যেতে চাইলেও বানেশ্বরের ভাড়া ১০০টাকা চাওয়া হচ্ছে।
সিরাজগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা রাজশাহীগামী সোহান পরিবহনের চালক মোবারক হোসেন বলেন, সিরাজগঞ্জ থেকে যাত্রী নিয়ে রাজশাহী যাওয়ার জন্য রওনা দিই। কিন্তু মালিক সমিতি থেকে রাজশাহী যাওয়ার জন্য নিষেধ করা হয়েছে। বাধ্য হয়ে নাটোরে যাত্রী নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। সমাবেশ কে কেন্দ্র করে এই ধরনের সিদ্ধান্ত।
নাটোর থেকে কোন বাস চলাচাল বন্ধ করা হয়নি দাবী নাটোর বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সভাপতি লক্ষণ পদ্দার বলেন, রাজশাহী মালিক সমিতির নির্দেশে সকল বাস চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে। কি কারনে সেটা আমরা জানি না। বরেন্দ্র বার্তা/হাহাশ/অপস

Close