চারঘাটশিরোনাম-২

চারঘাটে ড্রেনের সাথে টয়লেটের সংযোগ তৈরির ধুম

মো: সজিব ইসলাম, চারঘাট: চারঘাট পৌরশহরের ড্রেন দখল করে স্থাপনা ও ড্রেনের সাথে টয়লেটের সরাসরি সংযোগ উদ্বেগজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় ভেঙ্গে পড়েছে পৌরসভার পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থা। অপরদিকে পৌরসভার পরিচ্ছনতা কর্মীরা নিয়মিত শহরের ময়লা-আবর্জনা অপসারণ না করায় ও ড্রেনেজ সিষ্টেম সচল না রাখায় ড্রেনের দুর্গন্ধ ছড়িয়ে রোগ-জীবানু সংক্রমণের আশংকা দেখা দিয়েছে।

পৌরসভার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের ও স্যানিটারি কর্মকর্তার দায়িত্বের প্রতি অবহেলায় এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

জানা যায়,চারঘাট পৌরশহরের ভূমি অফিসের সামনের ড্রেনটি দীর্ঘ এক বছরেও একবার পরিচ্ছন্ন না করায় এটির দুর্গন্ধ ক্রমশ বাড়ছে। এতে স্কুল,কলেজ ও উপজেলাগামী পরিবেশ ও প্রতিবেশ বিনষ্ট হলেও কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না।

আরো জানা যায়,চারঘাট পৌরসভার মিয়াপুর,চারমাথা মোড়, মন্ত্রীরোড, আড়ানী রোড ও মেডিকেল মোড়ের আশেপাশের ড্রেনগুলোর সাথে অনেক কয়টি প্রতিষ্ঠান ও বাসা বাড়ির টয়লেটের সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে।যার ফলে ড্রেনের পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়াও কষ্টকর হয়ে গেছে।এ বিষয়ে পৌর কতৃপক্ষের কোনো তদারকি নেই।

নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক পৌর শহরের এক ব্যাক্তি জানান, তার বাসার পেছনের ড্রেন কতিপয় প্রভাবশালী পরিবার দখল করে রেখেছে। এ বিষয়ে ইতিমধ্যে কয়েকদফা পৌর কতৃপক্ষকে জানালেও তারা কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। এছাড়া পৌরশহরের মধ্যে ভূমি অফিসের শর্তাবলী লঙ্ঘণ করে ও পৌর কর্তৃপক্ষের অনুমোদনহীন একাধিক স্থাপনা গড়ে তোলা হলেও কতৃপক্ষ রহস্যজনক কারণে এসকল অবৈধ স্থাপনা অপসারণের কোন উদ্দ্যোগ নিচ্ছেন না।

নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক চারঘাট পৌরসভার একজন পরিচ্ছনতা বলেন,অনেকগুলো অফিস ও বাড়ির টয়লেটের লাইন ড্রেনের সাথে যুক্ত।প্রতিনিয়তি নতুন নতুন টয়লেটের সংযোগ ড্রেনের সাথে যুক্ত হচ্ছে।এতে প্রচন্ড দূর্গন্ধ ছড়ায়।এসব টয়লেটের সংযোগগুলো দখল মুক্ত না করা হলে ড্রেনের ভেতর থেকে ময়লা-আবর্জনা অপসারণ করা সম্ভব নয় বলে জানান তিনি।

চারঘাট উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর মনজিল হোসেন জানান, এটি পৌরসভার অধীন হওয়ায় পৌরসভার সংশ্লিষ্ট পরিবেশ অধিদপ্তরের দায়িত্ব।তবে তিনি এসব অভিযোগ গুলো পেয়েছেন।খুব দ্রুত পৌর কতৃপক্ষের সাথে বসে এগুলোতে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চারঘাট পৌরসভার মেয়র জাকিরুল ইসলাম বিকুল বলেন, আমরা এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি।শীঘ্রই এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়া হবে।
বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close