গোদাগাড়িশিরোনাম

গোদাগাড়ীর আওয়ামী লীগ নেতা ইসমাইল হত্যার চার্জশিট প্রদান

নিজস্ব প্রতিবেদক: গোদাগাড়ীর আওয়ামী লীগ নেতা ইসমাইল হত্যার চার্জশিট বুধবার আদালতে দাখিল করা হয়। মোট ৩৫ জনকে আসামী করে এই চার্জসিট প্রদান করা হয়। আসামীরা হলেন, আবু সুফিয়ান (৫০), অসীম রেজা রেজা (৩২), জাহির (৪৫), মোস্তাক আহম্মেদ ওরফে মেজরা (৩৫), শরীফ দুলাল ওরফে সেতু (৩৬), সাখাওয়াত হোসেন (৪০), মীর কাশিম ওরফে সাহেব (৪৮), লাভলু (৫০), ভকত আলী (৪২), আমিনুল ইসলাম (৪৫), মো. সিহাব (২০), মাসুম আক্তার স্বাধীন (৪৩), মিনারুল ইসলাম অরফে মিলন (৩৮), বুলবুল (৪৫), গোলাম দস্তগীর রানা (৩৮), হিটলার (৩৫), গিয়াস উদ্দিন (৫৭), ওমর ফারুক জিহাদি (৪০), আব্দুল মালেক পান্না ((৪০), আকবর আলী (৪০), মুক্তার আলী (৩০)
সাকিম উদ্দিন (৪২), ডালিম (৩৫), বয়েন উদ্দিন বনাব (৪৫), গোলাম নবী তিতু (৪২), সানাউল্লাহ (৩৫), রনি আহম্মেদ (২৫), বসির আহম্মেদ ওরুফে বাবু (৩৪), ইউনুস আলী (৩২), শফিকুল ইসলাম শফি (৪৩), আব্দুল খালেক শাহ (৫০), মামুন হাসান মাইনাস (২৫), টনিক(২৫), মিলন (২৮) ও কালাম (১৯) সবার বাড়ি গোদাগাড়ী উপজেলায়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জেলা গোয়েন্দা শাখার পুলিশ পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম দীর্ঘ তদন্ত শেষে এই চার্জসিট দাখিন করেন। এরমধ্যে ১-৫ নং আসামী বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছেন। এছাড়াও নয়জন পলাতক এবং অন্যান্য আসামীরা জামিনে রয়েছেন বলে জানা গেছে।
উল্লেখ্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে সহিংসতায় নিহত হন ইসমাইল হোসেন নিহত ইসমাইল হোসেন দেওপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি ঐ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। ৩০ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণের দিন দুস্কৃতিকারীরা পালপুর ভোটকেন্দ্র দখলে নিতে গেলে বাধা দিতে যান ইসমাইল। এ সময় তাকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করা হয়। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ইসমালের স্ত্রী বিজলা বেগম বাদী হয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। বরেন্দ্র বার্তা/ফকবা/অপস

Close