মহানগরশিরোনাম

দরিদ্র্য মানুষের জন্য আবাসন ব্যবস্থা করতে চাইঃ রাসিক মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনে এ্যাডভান্সিং ইনক্লিসিভ এ্যান্ড রেজিলিয়েন্ট ডেভলপেমেন্ট টার্গেটেড এ্যাট দ্যা আরবান পুওর সিটি লেভেল কন্সালটেশন মিটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার নগর ভবনের মিনি কনফারেন্স রুমে আয়াজিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

বক্তব্যে মেয়র বলেন, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বসবাসরত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন এবং উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাক নানামুখী কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। পিছিয়ে পড়া মানুষের জীবনমান উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার নিরলস প্রচেষ্টায় দারিদ্র্য সীমার হার কমিয়েছে। এছাড়া রাজশাহীতে বিভিন্ন প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছেন। তিনি বলেন, পিছিয়ে পড়া জনপদ রাজশাহী বিভাগীয় শহর হিসেবে রাজশাহীতে তেমন শিল্পায়ন হয়নি। নানা কারণে জীবন জীবিকায় পিছিয়ে। একমাত্র কৃষিতে এ অঞ্চলের বিপ্লব ঘটেছে। নগরীতে রয়েছে অনেকগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বর্নিত প্রেক্ষাপটে ব্র্যাক রাজশাহী শহরের জন্য প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়নে করণীয় নির্ধারণ
বিষয়ে সিটি কর্পোরেশন লেভেলে কনসাল্টেশন মিটিংয়ের আয়োজন করায় ব্র্যাক কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান মেয়র। তিনি বলেন, এ অঞ্চলের অর্থনৈতিক প্রবাহ বৃদ্ধি করতে না পারলে আর্থিকভাবে এ নগরী পিছিয়ে যাবে। এ জন্য সকলের সহযোগীতা প্রয়োজন। দরিদ্র্য মানুষের জন্য আবাসন ব্যবস্থা করতে চাই। হাইরাইজড বিল্ডিং করে দরিদ্র্য মানুষের জীবন মান উন্নয়নে কাজ করা হবে। প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়ের উন্নয়ন, স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়ন, শিক্ষা বৃত্তি প্রদান কার্যক্রমে ব্র্যাকের সহযোগীতা কামনা করেন মেয়র।

সভায় নগর দরিদ্র্যদের রেজিলিয়েন্স বিল্ডিং ও দারিদ্র্যতা দূরীকরণে বিভিন্ন প্রস্তাবনা নিয়ে আলোচনা করা হয়। আলোচ্য বিষয়গুলোর মধ্যে কমিউনিটি অবকাঠামো এবং মৌলিক পরিসেবা, কমিউনিটি পরিচালিত রেজিলিয়েন্ট হাউজিং, জনস্বাস্থ্য সেবা ও সুযোগ, সামাজিক নিরাপত্তা কার্যক্রম, অর্থের সহজ প্রাপ্তি, জীবিকা নির্বাহের পর্যাপ্ত সুযোগ, শিক্ষার সুযোগ, দক্ষতা বৃদ্ধি ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত অভিযোজন, শিশুপার্ক, ইকোপার্ক, ফুড সেফটি ল্যাব স্থাপন, খেলার মাঠ নির্মাণ, পাবলিক টয়লেট স্থাপন বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

নগর দরিদ্র্যদের রেজিলিয়েন্স বিল্ডিং ও দারিদ্র্যতা দূরীকরণে বিভিন্ন প্রস্তাবনা বিষয়ে প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন ব্র্যাকের ক্লাইমেট চেঞ্জ ইনভারমেন্ট প্রোগ্রাম স্পেসালিস্ট ড. মিজানুর রহমান। নগরীতে বসবাসরত স্বল্প আয়ের নাগরিকদের জীবন মান উন্নয়নে দারিদ্র্য নিরসনের লক্ষে এডিবি এর অর্থায়নে ব্র্যাক ও ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর ইনভায়রনমেন্টাল এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (আইআইইডি ) যৌথভাবে কান্ট্রি স্টাডি করছে।

রাসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ শাওগাতুল আলমের সভাপতিত্বে সভায় রাসিকের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, প্যানেল মেয়র-৩ ও সংরক্ষিত ওয়ার্ড-১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোসাঃ তাহেরা বেগম মিলি, ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ কামরুজ্জামান, ২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ নজরুল ইসলাম, ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ কামাল হোসেন, ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ তৌহিদুল হক, সংরক্ষিত ওয়ার্ড নং-৬ মোসাঃ মাজেদা বেগম, সংরক্ষিত ওয়ার্ড নং-৭ ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোসাঃ উম্মে সালমা, সচিব মোঃ আবু হায়াত মোঃ রহমতুল্লাহ, রাসিকের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা শাহানা আখতার জাহান, মাননীয় মেয়রের একান্ত সচিব মোঃ আলমগীর কবির, নির্বাহী প্রকৌশলী নূর ইসলাম তুষার, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ এএফএম আঞ্জুমান আরা বেগম, বাজেট কাম হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ শফিকুল ইসলাম, প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা শেখ মোঃ মামুন, ব্র্যাকের ডেপুটি ম্যানেজার মেহেদি হাসান, ব্র্র্যাক আরবান ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের রিজিওনাল কো-অর্ডিনেটর ফারজানা পারভীন, রাসিকের চিফ কমিউনিটি ডেভলপমেন্ট অফিসার আজিজুর রহমান ও রাসিকের ও ব্র্যাকের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close