পাবনাশিরোনাম-২

বৈষম্যহীন দেশ গড়তে ওয়ার্কার্স পার্টিকেই অবদান রাখতে হবে: বাদশা

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা বলেছেন, বাংলাদেশে উন্নয়ন হচ্ছে এটি অস্বীকারের কোন অবকাশ নেই, কিন্তু উন্নয়নের সাথে সাথে শ্রেণী বৈষম্য যে চরম সীমা অতিক্রম করেছে সেটিও অস্বীকার যায় না। তাই প্রয়োজন বৈষম্যহীন শাসনব্যবস্থা। আর এই বৈষম্য দূর করতে বিকল্প শক্তি হিসেবে ওয়ার্কার্স পার্টিকেই জনগণকে সাথে নিয়ে বিশেষ অবদান রাখতে হবে।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, পাবনা জেলা শাখার সম্মেলন উপলক্ষে আজ শুক্রবার সকাল ১১টায় পাবনার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে ফজলে হোসেন বাদশা এমপি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, আমাদের সংবিধানে লেখা আছে বৈষম্যহীন, শোষণমুক্ত, সমতাভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার কথা। সেই সমাজের কাঠামো প্রতিষ্ঠার জন্য ওয়ার্কার্স পার্টি লড়াই চালাচ্ছে, ভবিষ্যতেও চালিয়ে যাবে। যারা দেশের টাকা আত্মসাৎ করে বিদেশে পাচার করে কোটিপতি বনে যাচ্ছে তাদের ‘নব্য রাজাকার’ আখ্যায়িত করে তাদের বিরুদ্ধে ওয়ার্কার্স পার্টিকে রুখে দাঁড়ানোর হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা।

জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন-গণতন্ত্রী পার্টি পাবনা জেলা শাখার সভাপতি কমরেড সুলতান আহম্মেদ বুড়ো, ওয়ার্কার্স পার্টি পাবনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কমরেড নজরুল ইসলাম, ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম মনি, জেলা জাতীয় পার্টির সিনিয়র সহ-সভাপতি নাসির চৌধুরী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই দেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে শহীদদের ও দলের নিহত নেতাকর্মীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে দলের নেতাকর্মীরা প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন, ব্যানার নিয়ে শহরের শহীদ মিনার চত্বরে সমাবেশে মিলিত হয়। ঘণ্টাব্যাপী চলা প্রথম অধিবেশন বেলা সাড়ে ১২টায় শেষ হয়। পাবনা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে অনুষ্ঠিত প্রথম অধিবেশন শেষে দলের নেতাকর্মীরা আনন্দ মিছিল নিয়ে শহর প্রদক্ষিণ করেন। শহরের সেন্ট্রাল গার্লস হাইস্কুলের অডিটরিয়ামে দ্বিতীয় অধিবেশন শুরু হয় বিকেল ৩টা থেকে।
বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close