জাতীয়শিক্ষাঙ্গন বার্তাশিরোনাম

জাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা

বরেন্দ্র বার্তা ডেস্ক: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে চলমান আন্দোলনে হামলা ও তার প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণার প্রতিবাদে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের আন্দোলন সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। বুধবার সকাল থেকে ফের আন্দোলন শুরু করবেন আন্দোলনকারীরা।
মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে উপাচার্যের বাসভবনের পাশ থেকে অবস্থান তুলে নেয়ার ঘোষণা দেন আন্দোলনকারীরা। পরবর্তী আন্দোলন আরও জোরালো করতেই সাময়িকভাবে রাতের কর্মসূচি স্থগিত করা হয়। বুধবার সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে আগামী আন্দোলন শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন তারা।
এ বিষয়ে আন্দোলনকারী শিক্ষক অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু বলেন, ‘এই অশালীন ভিসির বিরুদ্ধে শালীনভাবে আন্দোলন করবো আমরা। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্ত্রাসের কোনো ঠাঁই হবে না। ভিসির সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে আমরা তার অপসারণের আন্দোলন চালিয়ে যাব।’
বুধবার সকাল ৯টায় বিক্ষোভ মিছিল ও ১০টায় অধ্যাপক আনু মুহাম্মদের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সংহতি সমাবেশ করবেন আন্দোলনকারীরা। এরপর তাদের কর্মসূচি আরও জোরালো করে আন্দোলন অব্যাহত রাখবেন বলে জানিয়েছেন তারা।
এর আগে ছাত্রলীগকে দুই কোটি টাকা ঈদ সালামি দেয়ার অভিযোগে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে উপাচার্যের বাসভবনের সামনের এ হামলায় আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ অন্তত ৩৫ জন আহত হয়েছেন।
এর প্রেক্ষিতে দুপুরে অনুষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের জরুরি সিন্ডিকেট সভায় অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্যাম্পাস বন্ধ ও শিক্ষার্থীদের বিকেল সাড়ে ৪টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়া হয়। তবে প্রশাসন নির্দেশনা সংশোধিত করে বুধবার সকাল ৮টার মধ্যে হল ছাড়ার নতুন আদেশ দিয়েছে।
প্রশাসনের এই নির্দেশের প্রতিবাদ জানিয়ে দিনভর বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। রাত ৯টার দিকে ছাত্রীরা হলের গেট ভেঙে বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেন। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close