মহানগরশিরোনাম

জাপা মহাসচিব রাঙাকে গ্রেফতার ও বহিস্কারের দাবিতে নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল

নিজস্ব প্রতিনিধি: স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনের সময় পুলিশের গুলিতে নিহত শহীদ নূর হোসেনকে নিয়ে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙার ঘৃণিত বক্তব্যের প্রতিবাদে আজ মঙ্গলবার নগরীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিল পরবর্তী সমাবেশ থেকে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ জাতীয় পার্টি থেকে রাঙাকে বহিস্কার ও গ্রেফতারের দাবি জানান। দুপুরে নগরীর লক্ষ্মীপুর মোড়ে জয় বাংলা পরিষদ রাজশাহীর উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে আসাদুজ্জামান আসাদ এ দাবি জানান। সমাবেশের আগে মিছিলটি নগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকার বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে সমাবেশে মিলিত হয়।
বক্তব্যে আসাদ বলেন, রাঙার বক্তব্য জাতীয় পার্টির বক্তব্য নয়, এটা তার নিজের বক্তব্য। এই বক্তব্যের তীব্র ধিক্কার জানিয়ে অবিলম্বে তাকে গ্রেফতারের করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। টেলিভিশনে দেখেছি নূর হোসেনের মায়ের ও ভায়ের চোখের পানি। নূর হোসেন গণতান্ত্রিক আন্দোলনের চেতনার মূর্ত প্রতীক। তাকে নিয়ে কটাক্ষ করলে আমরা ঘরে বসে থাকতে পারি না। তিনি আরো বলেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ জীবিত অবস্থায় নূর হোসেন সম্পর্কে কোন কুটুক্তি করতে পারে নি। নূর হোসেন বাঙালি জাতির প্রেরণার উৎস। রাঙার উদ্যেশ্যে তিনি বলেন, আজকে সারা বাংলাদেশের মানুষ ফুসে উঠেছে। আপনি মানুষকে সম্মান দিতে জানেন না। আপনার ধৃষ্টতার সীমা থাকা উচিত ছিলো। সীমা লঙ্ঘণ করেছেন। পৃথিবীর জীবন্ত পোস্টারকে কটাক্ষ করেছেন। সমাবেশ শেষে জাপা মহাসচিব রাঙার কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।
এসময় রাজশাহী মহানগর ছাত্র লীগের সাবেক সভাপতি শফিকুজ্জামান শফিক, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক প্রভাষক শরিফুল ইসলাম, সাবেক ছাত্রনেতা মেরাজুল ইসলাম মেরাজ, ফজলে রাব্বী বাদশা, রাজশাহী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহবুব খান ববিন, নিউ গভঃ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তরুণ, রাজশাহী জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সামাউন ইসলাম, মহানগর ছাত্রলীগ নেতা রাকিবুল হোসেন সোহেল, মামুন অর রশিদ, নাজমুল হোসেন নয়ন ও আব্দুল মজিদসহ অন্যান্য নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। বরেন্দ্র বার্তা/ফকবা/অপস

Close