নাটোরশিরোনাম-২

একদিনে ৪স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ

নাটোর জেলা প্রতিনিধিঃ নাটোরের গুরুদাসপুরে একদিনে ৪জন স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ করেছেন গুরুদাসপুর উপজেলা প্রশাসন।
মঙ্গলবার ১২ নভেম্বর দুপুরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার মকিমপুর গ্রামের মকিমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীতে পড়ুয়া সালমা খাতুন, উপজেলার পৌর সদরের চাঁচকৈড় মধ্যমপাড়া মহল্লার চাঁচকৈড় শাহিদা কাশেম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তিন ছাত্রী ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া শাহিনুর খাতুন, একই এলাকার সপ্তম শ্রেণীতে পড়ুয়া রহিমা খাতুন ও ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া কামরুন্নাহারের বাল্যবিয়ে বন্ধ করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার তমাল হোসেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হাফিজুর রহমান, একাডেমিক সুপারভাইজার বজলুর রহমান ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নিলুফা ইয়াসমীন।
ইউএনও তমাল হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি উপজেলার পৌর সদরের চাঁচকৈড় মধ্যমপাড়া ও শাহিদা কাশেম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ ও ৭ম শ্রেণীতে পড়ুয়া তিন জন মেয়ের বাল্যবিয়ে দেওয়ার জন্য প্রস্তুতি চলছে।
খবর পাওয়া মাত্রই দুপুরে তিনজন শিক্ষার্থীর বাড়িতে গিয়ে তাদের বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয় এবং অপরদিকে উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের মকিমপুর গ্রামের ৫ম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক ছাত্রীর বাল্য বিয়ের প্রস্তুতি চলছিলো।
সেখানেও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে পাঠিয়ে ওই ছাত্রীর বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়েছে। বাল্য বিয়ের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ায় প্রত্যেক ছাত্রীর অভিভাবকের কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে মুচলেকা। ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিয়ে দিতে পারবে না। বাল্য বিবাহ ও ইভটিজিং এর বিরুদ্ধে আমরা বদ্ধ পরিকর। বরেন্দ্র বার্তা/হাহাশা/অপস

Close