Uncategorized

অনুষ্ঠিত হলো ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের ৩৩ তম সম্মেলনের উদ্বোধনী সমাবেশ

বরেন্দ্র বার্তা ডেস্ক: “প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধ হই, গড়ে তুলি সন্ত্রাস দুর্নীতিমুক্ত গণতান্ত্রিক বিশ্ববিদ্যালয়” এই স্লোগানকে সামনে রেখে অনুষ্ঠিত হলো বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের ৩৩ তম সম্মেলনের উদ্বোধনী সমাবেশ।
বৃহস্পতিবার (১৪ নভেম্বর) সকাল ১১টায় অপারজেয় বাংলার পাদদেশে জাতীয় সংগীত ও দলীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন ঘোষণা করেন সাবেক ছাত্র ইউনিয়ন নেতা নাট্যব্যক্তিত্ব খায়রুল আলম সবুজ।
সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি জি এম জিলানী শুভ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী, ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি মেহেদী হাসান নোবেল, কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অনিক রায়, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মনিষী রায়, সহ-সভাপতি দীপক শীল।
সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ।
উদ্বোধনী সমাবেশের শুরতে খায়রুল আলম সবুজ বলেন, যে বটগাছের নিচে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দিচ্ছো এই বটগাছটি রোপণের সময় আমার হাত লেগেছে, সেই বটগাছটির আজ ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। পরিবর্তন হয়েছে অপারজেয় বাংলার। যে অপারেজয় বাংলার পাদদেশে তোমরা সভা সমাবেশ করছো সেই অপারেজয় বাংলা ভাস্কর্য নির্মাণের সময় সিমেন্ট আর বালির জোগাড় করেছিলাম, ৫০ বছর আগে রাস্তায় নেমে যে স্লোগান আমরা দিয়েছিলাম সেই স্লোগানের যেমন পরিবর্তন হয় নি, তেমনি হয়নি সমাজের কোনো পরিবর্তন। বসেই একই স্লোগান, একই দাবি ৫০ বছর পরেও তোমরা করে যাচ্ছো তাহলে এই ৫০ বছরে কি পরিবর্তন হলো? এটা বিবেক দিয়ে বুঝতে হবে। তোমরা যারা এখনো লড়াই সংগ্রাম করছো, আমার বিশ্বাস তোমাদের হাত ধরে পরিবর্তন আসবে।
সমাবেশে জি এম জিলানী শুভ বলেন “বিশ্ববিদ্যালয় হলো মানুষ তৈরির কারখানা। দুঃখের বিষয় সেখানে পড়তে এসে ছাত্র-ছাত্রীরা মানুষের চেয়ে অমানুষই হয় বেশি। যে শিক্ষকরা জাতির বিবেক সেই শিক্ষকরাই দুর্নীতি, দলনীতি, সাধারণ শিক্ষার্থীদের দমন পীড়নের ঘটনার সাথে জড়িত থাকে। এই ধরণের শিক্ষাব্যবস্থার মধ্য দিয়ে জাতিকে ধ্বংস করা হচ্ছে।
জি এম জিলানী শুভ বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি মহোদয় বলেছেন চা-সমুচা-চপ-সিঙ্গারা নাকি বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্য(!) তিনি মিডিয়া কর্মীদের নিয়ে ক্যান্টিনে যান ডালের ঘনত্ব পরীক্ষার জন্য। এই ধরণের বক্তব্য ও কার্যকলাপের মধ্য দিয়ে তার বিকৃত ব্যক্তিত্বের প্রতিফলন ঘটেছে।
‌বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ছাত্রনেতা মেহেদী হাসান নোবেল বলেন, গত দশ বছরে বাংলাদেশ থেকে পাচার হয়েছে ২৮ লক্ষ কোটি টাকা। দেশে কর্মসংস্থান সৃষ্টি না করে উন্নয়নের ডামাডোল পিটাচ্ছে সরকার। দেশ নাকি দিন দিন উন্নত হচ্ছে অথচ বাংলাদেশে ৪৮% মানুষ বেকার,তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা না করে বড় বড় দালান তুললেই উন্নয়ন হয় না। ছাত্রলীগ উন্নয়ন প্রকল্প থেকে ৬% কমিশন দাবি করে, যার পরিমাণ হয় ৮৬ কোটি টাকা। অথচ বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণার জন্য যে পরিমাণ টাকা বরাদ্দ হয়, এরচেয়ে ভিসির গাড়ি কেনার জন্য বরাদ্দ হয় বেশি।
বিশ্ববিদ্যালয়ে বরাদ্দ নিয়ে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া বক্তব্যের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আপনি জনগণের ট্যাক্সের টাকায় শ্রমীক লীগ, আওয়ামী লীগের সম্মেলনে হেলিকপ্টারে করে যান। আপনার এই হেলিকপ্টারের খরচ জনগণ কেন দিবে? অনুষ্ঠিত হলো ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের ৩৩ তম সম্মেলনের উদ্বোধনী সমাবেশ
সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন ছাত্র ইউনিয়ন, কেন্দ্রীয় সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক মনীষী রায় এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সহ-সভাপতি সাখাওয়াত ফাহাদ৷ সমাবেশ সঞ্চালনা করেন ছাত্র ইউনিয়ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাগীব নাইম।
সমাবেশে সমাপনী বক্তব্য প্রদান করেন ছাত্র ইউনিয়ন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ।
উদ্বোধনী সমাবেশ শেষে এক র‍্যালী অনুষ্ঠিত হয়। অপারেজয় বাংলা থেকে আরম্ভ হয়ে র‍্যালীটি মধুর ক্যান্টিন, রাজু ভাস্কর্য প্রদক্ষিণ করে জগন্নাথ হলে গিয়ে শেষ হয়। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close