অর্থ ও বাণিজ্যমহানগরশিরোনাম-২

রাজশাহীর আয়কর মেলায় ছুটির দিনেও উপচে পড়া ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক: সাপ্তাহিক ছুটির দিন আজ শুক্রবারেও রাজশাহীর আয়কর মেলায় ছিল উপচে পড়া ভিড়। বন্ধের দিন হলেও সেবা গ্রহনকারীরা ভিড় করেছে আয়কর মেলায়। নিজস্ব ভবন প্রাঙ্গণে সকাল থেকে আয় করদাতারা এসে আয়কর প্রদান ও রিটার্ন দাখিলসহ নানা সেবা গ্রহণ করেন জনগণ।
পূর্বে কখনো কর দেননি বলে জানান কর মেলায় আসা নগরীর সুলতানাবাদ এলাকার সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন মূলত মেলায় এসেছেন করের অধিক্ষেত্র সম্পর্কে ধারণা নিতে। করের আওতায় পড়লে তিনি কর দেবেন। এখানে আসার পর সে সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা লাভ করতে পেরেছেন বলেও জানান তিনি।
নিরিবিল ভাবে হিসাব কষে আয়কর দেওয়ার পর মহানগরীর হেলেনাবাদ এলাকার ব্যবসায়ী জমশেদ আলী বলেন, সাধারণত অন্য সময় কর দেওয়াটা একটু ঝামেলায় মনে হয়। তবে মেলায় আসলে বাড়তি সুবিধা পাওয়া যায়। আয়কর কর্মকর্তারা বিশেষ সেবা দিয়ে থাকেন। তাতে অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে সহজে আয়কর দেওয়া যায়। তাই তিনি মেলায় এসে কর দিতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন বলেও জানান তিনি। কেবল তারাই নন, মেলায় আসা এমন অনেক সেবাগ্রহীতা একই ধরনের বক্তব্য দেন। রাজশাহীতে চলমান সপ্তাব্যাপী এই আয়কর মেলায় শুধু কর প্রদান ও অধিক্ষেত্র জানা নয়, সেবাগ্রহীতারা রিটার্ন দাখিল ও ই-টিআইএন সনদ সংগ্রহসহ নানান ধরনের সেবা পাচ্ছেন। মেলার প্রথম দিন বৃহস্পতিবার এক কোটি ২৭ লাখ চার হাজার ৩৮৭ টাকা আয়কর আদায় হয়েছিল। আর সেবাগ্রহীতা ছিলেন ৩ হাজার ৫শ’ জন।
কর অঞ্চল রাজশাহীর উপ-কর কমিশনার (সদর দফতর-প্রশাসন) আবু নসর মো. মাহবুবুজ্জামান জানান, আয়কর মেলার দ্বিতীয় দিন শুক্রবার সরকারী ছুটির দিন থাকা সত্তে¡ও করদাতাদের ব্যপক সমাগম লক্ষনীয়। কর অঞ্চল-রাজশাহী’র সদর ৬(ছয়) টি সার্কেলে গতকাল সারাদিনে ১২৩৯টি আয়কর রিটার্ন জমা পড়েছে। রিটার্নের সাথে সরকারী কোষাগারে জমাকৃত রাজস্বের পরিমাণ ৪৩,০৬,৩০১/- টাকা। নতুন ই-টিআিইএন রেজিস্ট্রেশন হয়েছে ৩৫ টি। সর্বমোট সেবা গ্রহীতার সংখ্যা ৪৫০০ জন। অনেক করদাতা অনলাইনেও আয়কর রিটার্ন দাখিল করছেন। মেলার কার্যক্রম আরও পাঁচ দিন চলবে বলে জানান এই কমিশনার। বরেন্দ্র বার্তা/ফকবা/অপস

Close