চারঘাটশিরোনাম-২

চারঘাটে ছাদে কাপড় শুকাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ গৃহিণী

মো: সজিব ইসলাম, চারঘাট: রাজশাহীর চারঘাটে শাপলা খাতুন(৩২) নামের একজন গৃহিণী নিজ বাড়ির ছাদে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। বুধবার সকাল ১০টার দিকে মাষ্টার পাড়া এলাকায় নিজ বাড়ির ছাদে কাপড় শুকাতে গিয়ে তিনি গুলিবিদ্ধ হন। তাঁর ডান পায়ে গুলি লেগেছে। তিনি বর্তমানে চারঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মহিলা ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

শাপলার পরিবার ও তার স্বজনদের পক্ষ থেকে দাবি করা হচ্ছে আশে পাশের কেউ শত্রুতার জের ধরে গুলি করেছেন। তবে পুলিশ জানিয়েছে, গুলির উৎস এখনও নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি। সঠিক অনুসন্ধান শেষে এর উৎস খুজে বের করা হবে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন চারঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ নাজমুল হক।

শাপলা খাতুনের স্বামী ফয়সাল হোসেন জনি জানান, ঘটনার সময় তিনি বাজারে তার দোকানে ছিলেন। বাড়িতে তার মা এবং বউ শাপলা ছিল। প্রতিদিনের মতই শাপলা কাপড় শুকাতে দিতে ছাদে যায়। হঠাৎ শাপলা চিৎকার দিয়ে উঠলে তার মা গিয়ে দেখে শাপলা ছাদে পড়ে আছে। তাৎক্ষণিক সে সংবাদ পেয়ে বাসায় গিয়ে শাপলাকে বাড়ির পাশেই চারঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন।

তিনি আরো জানান, এ ঘটনা একেবারে পূর্ব পরিকল্পিত। তার বউয়ের এর আগে আরো দুইবার বিয়ে হয়েছিল। সে পক্ষের অনেক শত্রু রয়েছে।আবার তার নিজেরও আগে একবার বিয়ে হয়েছিল।সেখানেও অনেক শত্রু রয়েছে।এদের মধ্যেই কেউ হয়তো শত্রুতা করে হত্যার উদ্দেশ্যে শাপলার উপরে গুলি চালিয়েছে।তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার চেয়েছেন।

চারঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার শহিদুল ইসলাম রবিন বলেন, শাপলা খাতুন নামের রোগীটিকে তিনিই প্রথমে চিকিৎসা দিয়েছেন। তার ডান পায়ে একটি গুলি লেগেছিল। তবে কি ধরনের গুলি লেগেছিল সেটা তিনি দেখেননি। কারণ রোগী ও তার স্বজনরা গুলি বাড়িতেই হাত দিয়ে বের করে হাসপাতালে এনেছিল। রোগী এখন সম্পূর্ন সংকট মুক্ত রয়েছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চারঘাট মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) সমিত কুমার কুন্ডু জানান, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এখনো গুলির উৎস উদঘাটন করা সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে থানায় একটি সাধারন ডায়রি করা হয়েছে। সঠিক অনুসন্ধান শেষে গুলির উৎস খুঁজে বের করা হবে। বিষয়টা তদন্তাধীন রয়েছে।
বরেন্দ্র বার্তা/ নাসি

Close