শিরোনাম-২সাহিত্য ও সংস্কৃতি

জননী গ্রন্থাগার ও সাংস্কৃতিক সংস্থায় “বীর প্রতীক মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবি স্মৃতি কর্নার” উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক: সোমবার (৯ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় জননী গ্রন্থাগার কক্ষে মোসা: রিজিয়া খাতুনের সভাপতিত্বে বীর প্রতিক মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবি স্মৃতি কর্নার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিতছিলেন মাননীয় সংসদ সদস্য (৩৩৭ মহিলা আসন-৩৭) এ্যাড. আদিবা আনজুম মিতা বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিতছিলেন অধ্যাপক রুহুল আমীন প্রামানিক, দৈনিক রাজশাহীর আলোর সম্পাদক ও প্রকাশক মো: আজিবার রহমান,সুবর্ণলতা সংগীত বিদ্যালয়ের সভাপতি মো: হানিফ খন্দকার। জাতীয় সংগীত পরিবেনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করা হয়। স্বাগত বক্তব্যদেন জননী গ্রন্থাগার ও সাংস্কৃতিক সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা বইবন্ধু মো:আমিনুল হক রিন্টু। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন নাট্যজন মাহ্ফুজুর রহমান,একরামুল হক ইভান,কবি হাসান আবাবিল,বক্তাগণ তাঁদের বক্তব্যে এ ধরনের উদ্যােগের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং বেগম রোকেয়া দিবসের তাৎপর্য ও শ্রদ্ধেয় তারামন বিবির নানাদিক আলোচনা করেন। প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন মহান মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য রান্না বান্না করা অস্ত্র লুকিয়ে রাখা, পাকিস্কানি হানাদার বাহিনীদের অবস্থানের খবরাদি সংগ্রজ করাসহ সম্মুখ যুদ্ধে অংশগ্রহন করেছিলো বীর প্রতীক মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবি।
মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বের স্বীকৃতি স্বরুপ বাংলাদেশ সরকার ১৯৭৩ সালে মুক্তিযোদ্ধা তারামন বিবিকে বীর প্রতীক খেতাবে ভূষিত করেন। তিনি ১লা ডিসে্ম্বর-১৮ তারিখে নিজ বাসভবনে ইহজগৎ ত্যাগ করেন। আর জননী গ্রন্থাগার ও সাংস্কৃতিক সংস্থা বেগম রোকেয়া দিবসে এমন একজন নারী বীর প্রতীক মুক্তিযোদ্ধ তারামন বিবি স্মৃতি কর্নার উদ্বোধন সত্যিই প্রশংসা
প্রশংসার দাবী রাখে। জননীর পক্ষথেকে প্রতিষঠাতা বইবন্ধু আমিনুল হক রিন্টু প্রধান অতিথিকে সম্মাননা শুভেচ্ছা ক্রেষ্ট, অংকুর মহিলা সমাজ কল্যাণ সমিতির পক্ষে সাধারন সম্পাদক তারিনা সুলতানা, সুবর্ণলতা সংগীত বিদ্যালয়ের পক্ষে সভাপতি মো: হানিফ খন্দকার সম্মাননা শুভেচ্ছা ক্রেস্ট প্রদান করেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন ওয়ালিউর রহমান বাবু। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close