মহানগরশিরোনাম

রাজশাহীতে চলন্ত বাসে যুবতীকে ধর্ষন চেষ্টায় আটক সুপারভাইজার

ষ্টাফ রির্পোট : রাজশাহীতে চলন্ত বাসে যুবতীকে ধর্ষন চেষ্টায় আটক হয়েছে ধর্ষন চেষ্টাকারি বাসের সুপারভাইজার। আটককৃত সুপারভাইজারের নাম মোঃ ফজলুর রহমান (৩৭), সে নাটোর জেলারর রহিমকুড়ি গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে।
সোমবার (৯ ডিসেম্বর) রাত দেড়টার দিকে রাজশাহী নগরীর মতিহার থানাধিন বিনোদপুর বাজার ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়কের উপর আকিব (ঢাকা মেট্রো-ব ১৪-৮৬৪৩) চলন্তবাসে এ ঘটনা ঘটে।
ভুক্তভোগী যুবতী জানায়, তার মা-বাবা তাকে ছোট রেখে মারা যান। নানা-নানীর বাড়ি থেকে পড়া শোনা করে সে। তার বাড়ী বরিশাল বিভাগের লক্ষিপুর জেলায়।
রাজশাহী নগরীর শিরোইল এলাকায় তার বান্ধবীর টুম্পার বাড়িতে বেড়াতে আসার উদ্দেশ্যে গত সোমবার বিকাল ৫টার দিকে লক্ষীপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে রাজশাহীগামী আকিব যাত্রীবাহি বাসে চড়ে।
পথিমধ্যে নাটোর পার হওয়ার পরে বাসটিতে প্রায় যাত্রী শূণ্য হয়ে পড়ে। এ সময় বাসের সুপারভাইজার যুবতীর পাশের সিটে বসে তাকে কু-প্রস্তাব দেয়। এবং তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক তার শরীরে হাত দেয়। এ সময় যুবতীর চিৎকার দিলে তাকে ভয়ভীতি দেখায়।
পরে রাত দেড়টার দিকে বাসটি নগরীর বিনোদপুর বাজার অতিক্রম করার সময় যুবতী লোকজনকে দেখে চিৎকার দেয়। এ সময় রাবি’র শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা বাসটির গতিরোধ করে যুবতীর মুখে ঘটে যাওয়া ঘটনা শুনে সুপারভাইজারকে গনপিটুনি দিতে থাকে।
পরে মতিহার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই যুবতীকে উদ্ধার করাসহ আকিব নামের যাত্রীবাহি বাসের সুপার ভাইজারকে আটক করে। সেই সাথে বাসটিকে জব্দ করে থানা হেফাজতে নিয়ে আসে।
মতিহার থানা (ওসি) তদন্ত ওলিউর রহমান জানায়, লক্ষীপুর জেলা হতে রাজশাহীগামী আকিব বাসের সুপার ভাইজারকে মারধর করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে আমি ও সঙ্গীয় ফোর্স বিনোদপুর বাজারে উপস্থিত হয়ে জনতার কবল থেকে সুপরভাইজারকে উদ্ধার ও আটক করি। ভুক্তভোগী যুবতীকে মহিলা পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। সেই সাথে আকিব বাসটিও জব্দ করে থানা হেফাজতে নেয় হয়।
যুবতীকে শ্লীলতাহানির ঘটনায় সুপারভাইজার মোঃ ফজলুর রহমানের বিরুদ্ধে নারী-শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১০ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে তাকে বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন (ওসি) তদন্ত। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close