গোদাগাড়ি

গোদাগাড়ীর কাঁকনহাট পৌরসভায় নানা আয়োজনে বিজয় দিবস পালন

নিজস্ব প্রতিবেদক: গোদাগাড়ীর কাঁকনহাট পৌরসভা ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস নানা কর্মসুচির মধ্যে দিয়ে আজ সোমবার পালন করে। সকালে পৌর চত্বরে স্থাপিত শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পন শহীদদের প্রতিশ্রদ্ধা জানান এবং শহীদ রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ দোয়ার মধ্যে দিয়ে দিনে কর্মসূচি শুরু হয়। এরপর কাঁকনহাট পৌর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের আয়োজনে এবং কাঁকনহাট পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কাঁকনহাট পৌর মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল মজিদ এর নেতৃত্বে পৌরসভা চত্বর থেকে বিশাল আকারে বর্ণাঢ্য বিজয় র‌্যালি করা হয়। র‌্যালি নিয়ে তারা পৌর বাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুণরায় পৌর ভবনচত্বরে ফিরে আসেন। সেখানে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য প্রদান করে মেয়র।

গোদাগাড়ীর কাঁকনহাট পৌরসভায় নানা আয়োজনে বিজয় দিবস পালন

এসময়ে কাঁকনহাট পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ন কবীর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন শওকত, প্যানেল মেয়র আজাহার আলী, কাউন্সিলর সাদেকুল ইসলাম সেলিম, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সাইফুর রহমান বকুল, ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শরীফ মোল্লা, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মোজাহার আলী, পৌর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি সারওয়ার মোর্শেদ রুবেল, কৃষকলীগ সভাপতি কল্লোল মোল্লা, পৌর মহিলা লীগের সভাপতি আশরাফুন নেসা পরি ও সাধারণ সম্পাদক মর্জিনা বেগমসহ অন্যান্য ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ এবং দুই হাজার সাধারণ জনগণ এবং আওয়ামী লীগেরসমর্থকগণ উপস্থিত ছিলেন।

বক্তব্যে মেয়র বলেন, ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশ নামে একটি স্বাধীনভূখন্ডের সৃষ্টি হয়। জাতীর জনক শেখ মুজিবুর রহমানের স্বাধীনতার ঘোষনার মাধ্যম বাংলার দামাল ছেলেরা এবং বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ দীর্ঘ নয় মাস যুদ্ধ করে দেশকে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর নিকট থেকে স্বাধীন করেন। এসময়ে প্রায় ৩০ লক্ষ মানুষ নিহত হয় এবং প্রায় তিন লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রম হানি করে পাকিস্তানী হানাদার বাহিনী। আর এই স্বাধীনতা রক্ষা করার জন্য জনগণের প্রতি আহবান জানান মেয়র আব্দুল মজিদ।
বরেন্দ্র বার্তা/ ফকবা/ নাসি

Close