বাগমারা

বাগমারার ভবানীগঞ্জ পৌরসভায় সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আব্দুল জলিল

ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি: রাজশাহীর বাগমারায় শুরু হয়েছে ইউনিয়ন ও পৌর আ’লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। ইউনিয়ন এবং পৌর আ’লীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে নিজের পক্ষে প্রচারণা চালাচ্ছেন প্রার্থীরা। এবারের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে এবার যোগ্যরাই পদে আসছেন। ভবানীগঞ্জ পৌরসভায় সাধারণ সম্পাদক পদে থাকতে পারে একাধিক প্রার্থী। এবারের প্রতিটি সম্মেলনই জমকালো আয়োজনের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। গত ১১ জানুয়ারী ১০ নং মাড়িয়া ইউনিয়নের মধ্যে দিয়ে শুরু হয়েছে ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল। এদিকে আগামী শনিবার (১৮ জানুয়ারী) অনুষ্ঠিত হবে ভবানীগঞ্জ পৌর আ’লীগের ত্রি-বাষিক সম্মেলন। তরুণ প্রজন্মের উদীয়মান সৎ, যোগ্য, নিষ্ঠাবান প্রার্থী হিসেবে সাধারণ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন পৌর আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল। দীর্ঘদিন থেকেই রাজনীতির মাঠে সাধারণ মানুষের কল্যাণে কাজ করে চলেছেন তিনি।
আব্দুল জলিলের বাড়ি পৌরসভার ২ ওয়ার্ডের উত্তর একডালা গ্রামে। আব্দুল জলিল ছাত্র অবস্থা থেকেই রাজনীতির সাথে যুক্ত। ছাত্রলীগের মধ্যে দিয়ে শুরু হয় রাজনীতির মাঠে চলাফেরা। আব্দুল জলিল এক সময় উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদকের
দায়িত্বে ছিলেন। সেই সাথে উপজেলা বেসরকারী শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদকও ছিলেন। এছাড়া আব্দুল জলিল মুক্তিযোদ্ধা সংহতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পদেও সততা ও নিষ্ঠার সাথে নিজ দায়িত্ব পালন করে গেছেন। মানুষের ভালবাসা আর দলের
স্বার্থে কাজ করতে ভবানীগঞ্জ পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হয়েছেন তিনি। আগামী ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে এরই মধ্যে প্রচারণা শুরু করেছেন তিনি। আব্দুল জলিল দলের স্বার্থে কাজ করার আগ্রহ নিয়ে মাঠে নেমেছেন। এ ব্যাপারে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী আব্দুল জলিল জানায়, আমি দীর্ঘদিন থেকে রাজনীতির সাথে জড়িত আছি। আমি রাজনীতি করি মানুষ ও দেশের স্বার্থে ব্যক্তি স্বার্থে নয়। কাউন্সিলরা আমাকে সাধারণ সম্পাদক পদে চাচ্ছেন তাই আমি নির্বাচনে এসেছি। রাজনীতি নিজের প্রয়োজনে না। আমি রাজনীতি করি জনগণের প্রয়োজনে। ভবানীগঞ্জ পৌর আ’লীগের আগামী ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হলে তৃলমূলের রাজনীতি আরো বেগবান ও শাক্তিশালী হবে বলে আমি আশাবাদি।
বরেন্দ্র বার্তা/সরা/নাসি

Close