গোদাগাড়িশিরোনাম

গোদাগাড়ীতে মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের ঘটনায় শিক্ষক আটক

 

মুক্তার হোসেন ,গোদাগাড়ী (রাজশাহী) প্রতিনিধি: রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে বলাৎকারের ঘটনায় মাদ্রাসা শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টার এ ঘটনা ঘটে।পুলিশ ও স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, তালিমুল কোরআন ক্যাডেট মাদরাসার দ্বিতীয় শ্রেণির ০৮ বছরের ছাত্রকে কৌশলে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক বলাৎকার করেন। এ ঘটনা কাউকে না বলার জন্য ওই ছাত্রকে তখন ভয়ভীতি দেখান ওই শিক্ষক। শুক্রবার বিকালে বিষয়টি মাদ্রাসার অন্য শিক্ষার্থীরা জেনে যৌন নিপীড়নের শিকার শিশুটির বাড়িতে গিয়ে তার অভিভাবককে জানায়। একপর্যায়ে মাদ্রাসার ব্যবস্থাপনা পরিষদকেও জানানো হয়। পরে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আবাসিক শিক্ষার্থীরা বিক্ষুব্ধ হয়ে পড়াসহ এলাকাবাসী মাদ্রাসা ঘেরাও করে অভিযোগ ওঠা শিক্ষক কাওসার আলী (২১) গ্রেফতার ও তাঁর কঠোর শাস্তি দাবি করেন। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করাসহ ভুক্তভোগী ছাত্র ও অন্য শিক্ষার্থী-শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত জনতার বিক্ষোভের মুখে অভিযোগ ওঠা শিক্ষককে উদ্বার করে আটক দেখিয়ে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। পরে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর অভিভাবকের অভিযোগে ওই অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার দেখানো হয়। সে আলী নওগাঁর সাপাহার উপজেলা নিশ্চিন্তপুর গ্রামের নুরুল হকের ছেলে। মাদ্রাসার পরিচালক আতিক বিন আব্দুর রাজ্জাক বলেন, এই ধরনের ঘটনা আমার আগে জানা ছিল না আজ জানলাম শিক্ষকের পরিবারকে জানা হয়েছে। আজ থেকে এই শিক্ষককে বরখাস্ত করা হল এবং আইন অনুযায়ী যে ব্যবস্থা হবে সেটা মেনে নিতে হবে। থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খাইরুল ইসলাম বলেন,অভিযোগের প্রেক্ষিতে শিক্ষককে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। শিক্ষক ঘটনাটি স্বীকার করেছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close