মহানগরশিরোনাম

‘আগামীতে বাম সরকার গঠনের প্রস্তুতি চলছে’- রাজশাহীতে সেলিম

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামীতে বাম সরকার গঠনের প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাবেক ডাকসু ভিপি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম।
‘‘ব্যবস্থা বদলাও- ঘুষ দুর্নীতি ধর্ষন সন্ত্রাস রুখো” শীর্ষক স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)‘র রাজশাহীতে বিভাগীয় সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।
দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি তার সমপোযোগী বক্তব্য ও সিদ্ধান্ত জনগনের কাছে তুলে ধরতে সারা দেশে বিভাগীয় সমাবেশের কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে রাজশাহীতে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৩টায় নগরীর গণকপাড়ায় এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিপিবি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও সাবেক ডাকসু ভিপি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য, রুহিন হোসেন প্রিন্স এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন। সভাপতিত্ব করেন সিপিবি’র রাজশাহী বিভাগীয় সমন্বয়ক ও সাবেক রোকসু ভিপি কমরেড রাগিব আহসান মুন্না।
সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকারকে সরিয়ে দিতে হবে। ফ্যাসিষ্ট সরকার থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে। আজ দেশ দুইটি শ্রেনিতে বিভক্ত, একদিকে কামলা, কিষান, মুটে, মজুর, মেহনতি মানুষ অন্যদিকে ধনিকশ্রেনী, লুটেরা, বুর্জোয়াদের দিকে।
এমনকি রাজশাহীতেও এমন আছে যাদের পায়খানা বানাতে বিরাট বিরাট মুল্যবান পাথর লাগে। আবার অন্যদিকে দরিদ্ররা  ৫০ টাকার অভাবে ওষুধ কিনতে পারে না।
বর্তমান সরকার থেকে শুরু করে অতীতের বিভিন্ন সরকার যে আর্থ-সামাজিক নীতিতে দেশ চালায় তা মেহনতি জনগন ও মধ্যবিত্তের স্বার্থবিরোধী। বাড়ছে দ্রব্যমুল্য, সেই তুলনায় সাধারন মানুষের আয় বাড়ছে না। মুষ্টিমেয় কয়েকজন বাজার সিন্ডিকেটের হাতে ‘নিত্য পন্যের দাম’ জিম্মি, সরকার নির্বিকার ভাবে সিন্ডিকেটের স্বার্থ রক্ষা করে চলেছে।
সাধারন মানুষের শ্রমের টাকায় বড় বড় বাজেট, বড় বড় প্রকল্প নেয়া হচ্ছে, এ ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা,জবাবদিহিতা, নেই, লুটপাটের মহোৎসব চলছে।
শিক্ষা-স্বাস্থ্যকে পন্য বানানো হয়েছে। দখল-পরিবেশ-দুষন,ধর্ষন-খুন-সড়কে মৃত্যু-বিচারহীনতা স্বাভাবিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে।
ক্ষমতাসীন সরকার ক্ষমতার ‘সোনার হরিণ’ রক্ষায় আজ মানুষের নুন্যতম ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। গনতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ধ্ধংস করে সর্বত্র ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। এই দু:শাসনে অতিষ্ঠ জনগন। এ পরিস্থিতির সুযোগে সাম্প্রদায়িক জঙ্গি অপশক্তি, অগতান্ত্রিক শক্তি ষড়যন্ত্রের জাল বুনে চলেছে। লুটেরারা তাদের সাম্রাজ্যবাদী-আধিপত্যবাদী শক্তি দেশের উপর তাদের কর্তৃত্ব বাড়াচ্ছে। ক্ষমতার লোভে ক্ষমতাসীনরা দেশের স্বার্থ বিকিয়ে নতজনু পররাষ্ট্রনীতি গ্রহন করছে। এ অবস্থা বদলাতে বাম সরকার গঠনের প্রস্তুতি চলছে । ’
বগুড়া জেলার সাধারন সম্পাদক আমিনুল ফরিদের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী জেলার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য কমরেড এনামুল হক, সিপিবি নাটোর জেলার সাধারণ সম্পাদক, নির্মল চৌধুরি, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক, এ্যড. আবু হাসিব, সিরাজগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক, শহীদুল্লাহ সবুজ, জয়পুরহাটের সাধারণ সম্পাদক এম.এ রশিদ, পাবনা জেলার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড.আব্দুর রাজ্জাক,নওগাঁ জেলার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় সদস্য মহসিন রেজা প্রমুখ।
সমাবেশে অন্যান্য বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর হতে চলল, কামলা, কিষান, মুটে, মজুর, মেহনতি মানুষেরা আজও শোষণ-বৈষম্যের শিকার। সরকারি আমলা-কর্মচারীদের বেতন বাড়লেও শ্রমিকের নুন্যতম মজুরি নির্ধারিত হয়নি। অনেকে দেশে কাজ না পেয়ে বিদেশে গিয়ে অমানবিক কাজে বাধ্য হচ্ছে। তাদের পাঠানো টাকায় সরকার উন্নয়নের গল্প ফেঁদে বাহবা নিচ্ছে।
এ অবস্থা বহাল রেখে সাধারণ মানুষের স্বার্থ রক্ষা করা যাবেনা। প্রধান দুই দলের বাইরে বিকল্প শক্তি-সমাবেশ গড়ে তুলে ‘ভাত ও ভোটের’ নিশ্চয়তার জন্য ‘গদি বদলের’ সাথে সাথে ‘ব্যবস্থা বদলের’ লড়াই জোরদার করতে আহবান জানার নেতৃবৃন্দ।
জনসভায় কয়েক হাজার সমর্থক-সাধারণ মানুষসহ সিপিবির রাজশাহী বিভাগের সাত জেলা থেকে আগত নেতাকর্মী-সমর্থকরা ও স্থানীয় ছাত্র নেতৃবৃন্দ যোগ দেন।
সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল করে নেতা-কর্মীরা। রাজশাহীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে গনকপাড়ায় এসে শেষ হয়। বরেন্দ্র বার্তা/নাসি

 

Close