খেলাশিরোনাম

তিন ম্যাচে দ্বিতীয় সেঞ্চুরি লিটনের, বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ

খেলা ডেস্ক: লিটন দাস এখন অনেক পরিণত। আগের মতো শুরুতেই তেড়েফুড়ে মারতে যান না। দেখেশুনে শুরু করেন, ইনিংস বড় করার মানসিকতা দেখা যাচ্ছে প্রতি ম্যাচেই। ফলটাও হাতে হাতে পাচ্ছেন ডানহাতি এই ওপেনার।
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেই ১২৬ রানের হার না মানা এক ইনিংস খেলেছিলেন। দ্বিতীয় ম্যাচে রানআউটের কবলে পড়ে ৯ রানের বেশি এগোতে পারেননি। তবে তৃতীয় ওয়ানডেতে এসে আবারও হেসে উঠল লিটনের ব্যাট। তুলে নিলেন আরেকটি সেঞ্চুরি।
তিন ম্যাচে দুই সেঞ্চুরি করে লিটন নিয়ে দিলেন, আগের দিন আর নেই। এখন তার মধ্যে বড় পরিবর্তন এসেছে। ভবিষ্যতে বাংলাদেশ দলের ওপেনিংয়ের বড় ভরসা হওয়ারই ইঙ্গিত ২৫ বছর বয়সী এই তরুণের ব্যাটে।
তামিম ইকবালের সঙ্গে লিটন দাসের ওপেনিং জুটি এখনও অবিচ্ছিন্ন ১৮২ রানে। লিটন ১০২ আর তামিম ৭৯ রানে অপরাজিত আছেন, এমন সময়ে ঝরঝরিয়ে নেমেছে বৃষ্টি। ৩৩.২ ওভার খেলা হওয়ার পর হঠাৎ বৃষ্টিতে ম্যাচ বন্ধ রয়েছে।
এর আগে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অধিনায়ক হিসেবে নিজের বিদায়ী ম্যাচটি খেলতে নেমে টস হেরেছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। জিম্বাবুয়ে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত সূচনা করেছেন বাংলাদেশ দলের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল এবং লিটন দাস। দু’জনই আগের দুই ম্যাচে খেলেছেন দুর্দান্ত দুটি সেঞ্চুরির ইনিংস। প্রথম ম্যাচে লিটন অপরাজিত ১২৬ এবং দ্বিতীয় ম্যাচে তামিম খেলেন ১৫৮ রানের ইনিংস।
এই দুই ব্যাটসম্যান একসঙ্গে জ্বলে ওঠা মানে প্রতিপক্ষের বারোটা বাজানো। দু’জনই আজ একসঙ্গে জ্বলে উঠলেন জিম্বাবুয়ে বোলারদের বিপক্ষে।
মাত্র ৫২ বলে ৫০ রানের জুটি গড়ে ফেলেন তামিম-লিটন। এরপর ১১০ বলে ছুঁয়ে ফেলেন ১০০ রানের জুটি। পরের ৫০ পার করতে একটু সময় নিয়েছেন তারা। ১৭৮ বলে দেড়শ পার হয় এই জুটির। এখন অবিচ্ছিন্ন ১৮২ রানে। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close