পুঠিয়াশিরোনাম-২

পুঠিয়ায় চাঁদার টাকা না পেয়ে হামলা ভাংচুর ও মারপিটের ঘটনায় সাতজন আহত

রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলার শিলমাড়িয়া ইউনিয়নের তেতুঁলতলা ভেগার মোড় এলাকাই চাঁদার টাকা না পেয়ে হামলা ভাংচুর ও মারপিটের ঘটনায় সাতজন আহত হয়েছে।
এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান বাবুল ও তার সহযোগিরা হামলা চালিয়ে একটি মটোরসাইকেল, দুই লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা সহ একটি স্বর্ণের চেন ছিনতাই করে এবং তিনটি মটোরসাইকেল ভাংচুর করে সাতজন কে আহত করেছে। এদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা গুরুতর। গুরুতর আহতরা হলেন রাজশাহী জেলার দূর্গাপুর উপজেলার পানানগর ইউনিয়নের গোলাবাড়ি গ্রামের মৃত খেতু মন্ডলের ছেলে সাবেক মেম্বার খোরশেদ আলম (৪৫), একই এলাকার খলিলের ছেলে সাহাবুর রহমান (৩৫) এবং তার ভাই মাহাবুর রহমান (৩২) এদেরকে পুঠিয়া মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাবুল ও তার সহযোগিদের অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন। তাদের হামলায় আরো আহতরা হলেন, শিলমাড়িয়া ইউনিয়নের জগপাড়া গ্রামের আব্দুল মান্নানের ছেলে আব্দুল হান্নান (৩৪), একই এলাকার গয়েন উদ্দিন বানুর ছেলে রিপন (৩৩) এবং তার ভাই আল মামুন (৩২) এছাড়া মৃত জান মোহাম্মাদের ছেলে সেলিম সহ আরো অনেকেই। এ ব্যাপারে সাবেক সৈনিক ও মদীনা ইট ভাটার মালিক ও পুটিয়া উপজেলার ইট ভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বেলান হোসেন এই প্রতিবেদককে বলেন, বাবুল ও তার সহযোগিদের হামলায় একটি মটোরসাইকেল, দুই লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা সহ একটি স্বর্ণের চেন ছিনতাই করে ,ও তিনটি মটোরসাইকেল ভাংচুর করে সাতজন কে
আহত করেছে। এ ব্যাপারে এলাকার মানুষ পুঠিয়া থানায় খবর দিলে পুঠিয়া থানার পুলিশ এসে ভাংচুরকৃত তিনটি মটোরসাইকেল থানায় নিয়ে যায়। রাজশাহী জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আবুল কালাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন । এ ব্যাপারে পুঠিয়া থানায় একটি মামলা হয়েছে এবং মামলায় পুঠিয়া থানার পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে । এ বিষয়ে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ আবুল কালাম জানান অপরাধির বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বরেন্দ্র বার্তা/সরা/অপস

Close