আন্তর্জাতিকজাতীয়শিরোনাম

করোনা পরিস্থিতি: দেশে করোনায় আরও একজনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২৪

দেশে করোনায় আরও একজনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২৪
বাংলাদেশকে জরুরি অবস্থা ঘোষণার পরামর্শ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার
এইচএসসি পরীক্ষা পেছানোর নীতিগত সিদ্ধান্ত
চসিকসহ দুই আসনের উপনির্বাচন স্থগিত
মিরপুরে একটি ভবন লকডাউন, ঘিরে রেখেছে পুলিশ
উপনির্বাচন: ভোটারশূন্য কেন্দ্র
করোনায় প্রাণ গেল ১১৩৯৮ জনের
চীন থেকে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে ১০ হাজার কিটসহ চিকিৎসা সামগ্রী আসছে, পুলিশ, স্বাস্থ্য, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট দফতর ও সংস্থায় ছুটি বাতিল।
চার দেশ ও অঞ্চল বাদে সব আন্তর্জাতিক রুটের ফ্লাইট বন্ধ ।
করোনার চিকিৎসায় রাশিয়ার ৬ ওষুধ আবিষ্কার, চলছে পরীক্ষা ।

দেশে করোনায় আরও একজনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২৪

দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুজন মারা গেলেন। এছাড়া ভাইরাসটিতে নতুন করে আরও চারজন আক্রান্ত হয়েছেন, ফলে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ জনে।

শনিবার (২১ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এ তথ্য জানান।
মন্ত্রী জানান, করোনাভাইরাসে দেশে আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে। ফলে দেশে করোনায় আক্রান্তে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুজনে। গত ২৪ ঘণ্টায় যাদের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে, তাতে আরও চারজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ফলে দেশে আক্রান্তের

সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪ জনে। সারাদেশে ১৪ হাজার জন আছেন হোম কোয়ারেন্টাইনে। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ৫০ জন।

বাংলাদেশকে জরুরি অবস্থা ঘোষণার পরামর্শ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

করোনা মোকাবেলায় দেশকে আংশিক বা পুরোপুরি লক ডাউন এবং জরুরি অবস্থা ঘোষণার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এমনটি জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন।
ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন এর সঙ্গে করোনা মোকাবেলায় এক বৈঠকে এই পরামর্শ দিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিশেষজ্ঞরা।
শনিবার (২১ মার্চ) রাজধানীর বনানীতে নিজ বাসভবনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, যুক্তরাষ্ট্রের কমিউনেকেবল ডিসিস কন্ট্রোল এন্ড প্রটেকশন (এসডিসিপি) এর প্রতিনিধিদের সাথে এক বৈঠকে শেষ এ তথ্য জানান তিনি।

এইচএসসি পরীক্ষা পেছানোর নীতিগত সিদ্ধান্ত

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পেছাতে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে আন্তঃশিক্ষাবোর্ড। শনিবার (২১ মার্চ) সব বোর্ডের চেয়ারম্যানরা সভা করে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
পরীক্ষা পেছানোর প্রস্তাব আগামীকাল আন্তঃশিক্ষাবোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি থেকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।
বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হক। তিনি জানান, করোনাভাইরাসের কারণে পরীক্ষা পেছানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। আগামীকাল এ প্রস্তাব শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে।
এদিকে পরীক্ষা পেছানোর নীতিগত সিদ্ধান্তের কারণে প্রবেশপত্র বিতরণের সময় স্থগিত করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, আগামী ১ এপ্রিল বাংলা (অবশ্যিক) প্রথম পত্র দিয়ে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। ৪ মে পর্যন্ত তত্ত্বীয় পরীক্ষা আয়োজন হওয়ার কথা রয়েছে। এরপর ৫ মে ব্যবহারিক পরীক্ষা শুরু হয়ে ১৩ মে পর্যন্ত চলার কথা রয়েছে।

চসিকসহ দুই আসনের উপনির্বাচন স্থগিত

করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। একইসঙ্গে বগুড়া-১ ও যশোর-৬ আসনের উপনির্বাচনও স্থগিত করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।
শনিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত নির্বাচন ভবনে কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
উল্লেখ্য, ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটি, দুই আসনে উপনির্বাচন ছাড়া কিছু স্থানীয় সরকার নির্বাচন ছিল।
সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার, চার কমিশনার ও ইসি সচিবসহ সংশ্লিষ্ট শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
যদিও করোনায় সৃষ্ট ক্রান্তিকালের মধ্যেই আজ ঢাকা-১০, গাইবান্ধা-৩ ও বাগেরহাট-৪ আসনের উপনির্বাচনে ভোট হচ্ছে।

মিরপুরে একটি ভবন লকডাউন, ঘিরে রেখেছে পুলিশ

রাজধানীর মিরপুরে একটি ভবন ঘিরে রেখেছে পুলিশ। ওই ভবনে ও তার আশেপাশে চলাচলও সীমিত করা হয়েছে।
ওই ভবনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক রোগীর পরিবার রয়েছে উল্লেখ করে আইইডিসিআর থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে যেন ওই ভবন থেকে কেউ বের হতে না পারে।দেশে জরুরি অবস্থা জারির জন্য রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন
শনিবার (২১ মার্চ) বিকেল পৌন ৪টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশের মিরপুর বিভাগের ডিসি মোস্তাক আহমেদ।
তিনি বলেন, মিরপুরের একটি ভবনে একটি পরিবারকে হোম কোয়ারান্টাইন বাধ্যতামূলক পালনের নির্দেশনা দিয়েছে আইইডিসিআর। সেজন্য ভবনটি নজরদারিতে রাখা হয়েছে। ওই ভবন থেকে যেন কেউ বের হতে না পারেন। ওই ভবনে প্রবেশ সংরক্ষিত ও এলাকায় চলাচল সীমিত করা হয়েছে।
একটি সূত্র জানায়, ওই ভবনে একজন করোনাভাইরাস পজিটিভ ব্যক্তি ছিলেন। এমন তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর ও আইইডিসিআর। সতর্কতার জন্য আক্রান্ত ওই রোগীর সঙ্গে সম্ভাব্য চলাফেরা ও মেলামেশা করা ভবনের অন্যদের হোম কোয়ারান্টাইন বাধ্যতামূলক করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

ঢাকা-১০ : ভোটার শূন্য ভোট কেন্দ্র

ঢাকা-১০ আসনের উপনির্বাচনে ভোটার শূন্য প্রায় সব ভোটকেন্দ্র। সকাল সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত এ আসনের অন্তত ২৫টি কেন্দ্র ঘুরে এই চিত্র দেখা গেছে। সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত আড়াই ঘণ্টায় এসব কেন্দ্রে ভোট পড়েছে তিন শতাংশেরও কম। তবে সকালে ভোটার উপস্থিতি কম হলেও দুপুর নাগাদ বাড়তে পারে বলে আশা করছেন বিভিন্ন কেন্দ্রে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা।
সকাল সাড়ে ৯টায় নিউ মার্কেট বলাকা সিনেমা হল কেন্দ্রে গিয়ে দেখা গেছে প্রায় সবগুলো বুথই ফাঁকা, কোনো ভোটার নেই। ছয়টি বুথে ভোট শুরুর প্রথম আধঘণ্টায় কোনো ভোটই পড়েনি। তবে কেন্দ্রের সামনে নৌকার সমর্থকদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।
এছাড়া কাঠালবাগান খান হাসান স্কুল, নিউমার্কেট বলাকা সিনেমা হল, রায়ের বাজার হাই স্কুল, রাজমশুর স্কুল, প্রগতি স্কুল কেন্দ্রে ভোটারদের তেমন উপস্থিতি চোখে পড়েনি।
মনেশ্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রেও ভোটার উপস্থিতি ছিল একেবারে কম। বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ২ হাজার ৫৯৮ ভোটের মধ্যে ৬টি বুথে ভোট পড়েছে ৬৯টি। এ কেন্দ্রে বিএনপির কোনো এজেন্ট দেখা যায়নি।
এদিকে ঢাকা কলেজ কেন্দ্রে ছাত্রদল নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ ঘটনা ঘটে। পরে কেন্দ্র ছেড়ে কাঠালবাগান এলাকায় চলে যায় ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। এছাড়া ধানমন্ডির ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি কেন্দ্রের বিএনপির এজেন্টদের মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এছাড়া করোনাভাইরাস প্রতিরোধে ভোটকেন্দ্রগুলোতে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা দেখা গেছে। বিভিন্ন স্থানে হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখা থাকলেও ভোটার খরায় তার অনেকগুলোই অব্যবহৃত অবস্থায় দেখা গেছে।

গাইবান্ধা-৩: করোনা আতঙ্কে ভোটার নেই, কেন্দ্রে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা

করোনা আতঙ্কের মধ্যেই গাইবান্ধা-৩ (সাদুল্লাপুর-পলাশবাড়ী) আসনের উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। শনিবার (২১ মার্চ) সকাল ৯টা ভোটগ্রহণ শুরু হলেও ভোটার উপস্থিতি খুবই কম। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার উপস্থিতি বাড়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এ নির্বাচনে যেকোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা মোকাবিলায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে অধিকাংশ কেন্দ্রে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।
সরেজমিনে দেখা যায়, গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলার মহাদেবপুর উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে সকাল ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত তেমন ভোটার উপস্থিতি নেই।
আব্দুল মালেক নামে এক ভোটার জানান, করোনাভাইরাস আতঙ্কের কারণে মূলত ভোটার উপস্থিতি কম। হাত ধোয়ার ব্যবস্থা আছে শুনে বেলা ১১টার পর ভোটার উপস্থিতি বাড়তে শুরু করেছে।
এদিকে পলাশবাড়ী উপজেলার তালুক জামিরা এলাকার অনেকেই ভোট দিতে না গিয়ে মাঠে কাজ করছেন। ভোটের প্রতি তাদের আগ্রহ নেই। খাইরুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি জানান, সরকার যেখানে স্কুল-কলেজ বন্ধ করে দিয়েছে সেখানে ভোটগ্রহণ বন্ধ করা দরকার ছিল। কারণ বিদেশফেরতরা কখন কোথায় যাচ্ছে তার ঠিক নেই। তাই লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দেয়ায় করোনার ঝুঁকি আছে। এ কারণেই ভোট দিতে যাননি । তার মতো অনেক সচেতন মানুষই করোনাভাইরাসের আতঙ্কে ভোট দিতে যায়নি ।
সাদুল্লাপুর উপজেলার বুজরুক রসুলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্র দেখা যায়, শান্তিপূর্ণভাবে ভোটাররা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন। তবে এ সময় ভোটার উপস্থিত ছিল কম।
বুজরুক রসুলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার আনোয়ারুল ইসলাম, জানান, বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার উপস্থিতি বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি পলাশবাড়ী টাউন হল ভোটকেন্দ্রে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের জানান, জয়ের ব্যাপারে তিনি শতভাগ আশাবাদী ।
গাইবান্ধা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহাবুবুর রহমান জানান, সাদুল্লাপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন ও পলাশবাড়ী উপজেলার একটি পৌরসভাসহ ৯টি ইউনিয়নসহ দুই উপজেলায় ১৩২টি কেন্দ্রে মোট ৪ লাখ ৩৭ হাজার ৯০৮ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।
গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন জানান, এ আসনের দুই উপজেলায় ১০ প্লাটুন বিজিবি, ২০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও র্যাবের ২০টি টিম মাঠে কাজ করছে। করোনা প্রতিরোধে কেন্দ্রগুলোতে হাত ধুয়ে ভোট কক্ষে যাওয়ার জন্য সাবান, পানি ও হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে।
গাইবান্ধার পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম জানান, অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য ভোটগ্রহণের জন্য প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং অফিসার, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট প্রায় আড়াই হাজার কর্মকর্তা ও প্রায় তিন হাজার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য কাজ করছে।
একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসন থেকে নির্বাচিত হয়েছিলেন আওয়ামী লীগের ইউনুস আলী সরকার। ২০১৯ সালের ২৭ ডিসেম্বর তার মৃত্যুতে এ আসনটি শূন্য ঘোষণা করা হয়। চলতি মাসের ৬ তারিখ এ আসনের উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। তফসিলে ভোট গ্রহণের দিন ধার্য করা হয় ২১ মার্চ। এ উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি এবং জাসদের চারজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

চীন থেকে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে ১০ হাজার কিটসহ চিকিৎসা সামগ্রী আসছে,পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট দফতর ও সংস্থায় ছুটি বাতিল

বাংলাদেশের আহ্বানের পরিপ্রেক্ষিতে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে ১০ হাজার কিটসহ চিকিৎসা সামগ্রী দিতে রাজি হয়েছে চীন। প্রয়োজনে চার্টার্ড ফ্লাইটে এসব সামগ্রী দেশে আনা হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।
শনিবার (২১ মার্চ) দুপুরে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে ড. মোমেন এ কথা বলেন। এসময় পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনও উপস্থিত ছিলেন।
করোনাভাইরাস শনাক্তকরণে বাংলাদেশকে ১০ হাজার কিটের পাশাপাশি ১৫ হাজার সার্জিক্যাল মাস্ক এন-৯৫, ১০ হাজার চিকিৎসক ও নার্সের সুরক্ষায় গাউন এবং এক হাজার ইনফ্রারেড থার্মোমিটার দিচ্ছে চীন।
ড. মোমেন বলেন, শোনা যাচ্ছে দেশে করোনা শনাক্তকরণ কিট নেই। আমরা চীনকে অনুরোধ করেছিলাম। তারা ১০ হাজার টেস্টিং কিটসহ আরও বেশ কিছু চিকিৎসা সামগ্রী প্রস্তুত রেখেছে আছে। প্রয়োজনে সেসব চার্টার্ড ফ্লাইট দিয়ে নিয়ে আসব।
করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী দেশে ফেরত আসা প্রবাসীদের কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম মেনে চলার আহ্বান জানান।
ড. মোমেন বলেন, বিভিন্ন দেশের সাথে আমাদের আলাপ হয়েছে। বিদেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভিসা শেষ হয়ে গেলেও সমস্যা নেই। সব দেশই জানিয়েছে, প্রয়োজনে তারা ভিসার মেয়াদ বাড়াবে। তাই প্রবাসীদের ভয়ের কোনো কারণ নেই।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, পুলিশ, স্বাস্থ্য, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট দফতর ও সংস্থায় ছুটি বাতিল করে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত কাজে সবাইকে তৎপর হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এ বিষয়ে জনগণ ও সরকারের যৌথ উদ্যোগ নেয়া দরকার। জনগণ সজাগ হলে এ পরিস্থিতি মোকাবিলা করা সম্ভব।

চার দেশ ও অঞ্চল বাদে সব আন্তর্জাতিক রুটের ফ্লাইট বন্ধ

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে চার দেশ ও অঞ্চল বাদে সব আন্তর্জাতিক রুটের ফ্লাইট বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। শনিবার (২১ মার্চ) রাত ১২টা থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে।
বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় এক বার্তায় জানায়, দেশে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) বিস্তাররোধে ২১ মার্চ দিনগত রাত ১২টা থেকে ৩১ মার্চ রাত ১২টা পর্যন্ত কাতার, বাহরাইন, কুয়েত, সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, তুরস্ক, মালয়েশিয়া, ওমান, সিঙ্গাপুর এবং ভারত থেকে কোনো শিডিউলড্ আন্তর্জাতিক যাত্রীবাহী বাণিজ্যিক উড়োজাহাজকে কোনো আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নামার অনুমতি দেয়া হবে না।
সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের কার্যক্রম পুরোপুরি বন্ধ থাকবে।
ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসবে চীন, থাইল্যান্ড ও হংকংয়ের (ক্যাথে প্যাসিফিক) ফ্লাইট। এছাড়া সিলেটের ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কেবল যুক্তরাজ্য থেকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট নামবে।
বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে যে দেশগুলো মোটামুটি সেফ মনে করেছি, সেখান থেকে ফ্লাইটগুলো অ্যালাও করব, বাকি সব বন্ধ।
বর্তমানে ঢাকা-ব্যাংকক রুটে থাই এয়ারলাইন্স এবং ইউএস-বাংলার দুইটি ফ্লাইট চালু আছে। ইতোমধ্যে থাই লায়ন এয়ার, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এই রুটে ফ্লাইট বন্ধ করেছে।
ঢাকা-হংকং রুটে ক্যাথে প্যাসিফিকের (ড্রাগন এয়ার) একটি ফ্লাইট এবং ঢাকা থেকে চীনের বিভিন্ন রুটে ইউএস-বাংলা, চায়না সাউদার্ন ও চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট চলাচল করে।
চট্টগ্রামের শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক উইং কমান্ডার সারওয়ার ই জামান বলেন, আমাদের নয় রুটে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল করে। করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে শনিবার রাত ১২টার পর থেকে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নয়টি রুটের সব আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচল বন্ধ হচ্ছে। আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত বলবৎ থাকবে।
তিনি জানান, নন কমার্শিয়াল ফ্লাইট শাহ আমানতে আসতে পারবে, চালু থাকবে অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচলও। এছাড়া গতকাল শুক্রবার (২০ মার্চ) ফ্লাই দুবাই ও এয়ার এরাবিয়ার ফ্লাইটে যাত্রী এসেছেন চট্টগ্রামে। আজও (শনিবার) এয়ার এরাবিয়ার একটি ফ্লাইট যাত্রী নিয়ে চট্টগ্রাম আসবে।
এ ভাইরাসের কারণে বাংলাদেশও বিভিন্ন ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করেছে। সবশেষ আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের ওপর আংশিক এ নিষেধাজ্ঞা জারি হলো।

করোনায় প্রাণ গেল ১১৩৯৮ জনের

বিশ্বের ১৮৫টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস। এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৭৫ হাজার ৯৩২ জন এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ১১ হাজার ৩৯৮ জন। তবে এখন পর্যন্ত চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৯১ হাজার ৯১২ জন।
গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। এরপর থেকেই চীনের বিভিন্ন প্রান্তে করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়ে। একই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়তে থাকে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা।
তবে গত কয়েকদিনে এই চিত্র বদলে দিয়েছে ইতালি। গত কয়েক মাসে চীন যে পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে গেছে ঠিক একই রকম পরিস্থিতি এখন ইতালিতে। বরং চীনে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি হলেও এখন পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যায় চীনসহ অন্যান্য দেশকে ছাড়িয়ে গেছে ইতালি।
দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪৭ হাজার ২১। সেখানে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৯৮৬। দেশটিতে গত একদিনেই মারা গেছে আরও ৬২৭ জন। এ পর্যন্ত একদিনে করোনায় মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড এটা।
ফলে এখন পর্যন্ত দেশটিতে মোট মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ৩২ জনের। এখন পর্যন্ত সেখানে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়েছে ৫ হাজার ১২৯ জন। ইউরোপের দেশটিতে ৩৭ হাজার ৮৬০ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে আক্রান্তদের মধ্যে ২ হাজার ৬৫৫ জনের অবস্থা গুরুতর।
গত বৃহস্পতিবারই করোনায় মৃত্যুর সংখ্যায় চীনকে ছাড়িয়ে যায় ইতালি। সেদিন দেশটিতে মৃত্যু হয়েছিল ৪২৭ জনের। আর গত বুধবার প্রাণ হারিয়েছিলেন ৪৭৫ জন কোভিড-১৯ রোগী। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সেটাই ছিল যেকোনও দেশের জন্য একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। শুক্রবার নিজেদের সেই রেকর্ডকেও ছাড়িয়ে গেছে তারা।
অপরদিকে, চীনে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৮১ হাজার ৮ এবং মারা গেছে ৩ হাজার ২৫৫ জন। এরপরেই রয়েছে স্পেন। সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ২১ হাজার ৫৭১ এবং মারা গেছে ১ হাজার ৯৩ জন।
অপরদিকে জার্মানিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ হাজার ৮৪৮ এবং মারা গেছে ৬৮ জন। ইরানে আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ হাজার ৬৪৪ এবং মারা গেছে ১ হাজার ৪৩৩ জন। যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ হাজার ৬৪৩ এবং মৃত্যু ২৬৩।
ফ্রান্স এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১২ হাজার ৬১২ এবং মারা গেছে ৪৫০ জন, যুক্তরাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ৯৮৩ এবং মৃত্যু ১৭৭। পাকিস্তানে আক্রান্ত ৫০১ এবং মৃত্যু ৩, সৌদি আরবে আক্রান্তের সংখ্যা ৩৪৪। অপরদিকে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ২০ জন এবং মারা গেছে একজন। চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে তিনজন।

করোনার চিকিৎসায় রাশিয়ার ৬ ওষুধ আবিষ্কার, চলছে পরীক্ষা

করোনাভাইরাস নিয়ে বিশ্বব্যাপী আতঙ্কের মাত্রা এখন তুঙ্গে। বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধানরা রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন এ ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায়। আর উন্নত দেশের ডাক্তার গবেষকরা কাজ করে যাচ্ছেন এ ভাইরাসের ভ্যাকসিন তথা প্রতিষেধক তৈরিতে।
চীন, আমেরিকা ও জাপানের ডাক্তাররা এ ভাইরাসের ভ্যাকসিন তৈরিতে অনেকদূর এগিয়েছেনও। আর করোনার ভ্যাকসিন তৈরিতে এবার কাজ করে যাচ্ছে রাশিয়া।
রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিশুস্তিন দাবি করেছেন, দেশটির ডাক্তাররা ভ্যাকসিন আবিষ্কারে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। করোনার প্রতিষেধক হিসেবে ছয়টি ওষুধ আবিষ্কার করেছে তারা। এখন এসব ওষুধের ওপর পরীক্ষা করা হচ্ছে।
তিনি বলেন, ‘দেশের গবেষকরা এগুলো খুব অল্প সময়ের মধ্যে আবিষ্কার করেছে। এক্ষেত্রে আধুনিক বায়োটেকনোলজি ব্যবহার করা হয়েছে।’
নিকট ভবিষ্যতে এ ভ্যাকসিন করোনাভাইরাস নিরাময়ে কাজ করবে বলেও তিন আশা প্রকাশ করেন। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

সুত্র: জাগো নিউজ

Close