জয়পুরহাটশিরোনাম-২

করোনা প্রতিরোধে জয়পুরহাটে সেচ্ছায় গ্রাম ‘লকডাউন’

 

জয়পুরহাট প্রতিনিধি: প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ ঝুঁকি মোকাবিলায় জয়পুরহাটের আমদই ইউনিয়নের পাইকড় বালকাপাড়া গ্রামে স্থানীয় যুব সমাজের উদ্যোগে সেচ্ছায় লকডাউন করা হয়েছে।
বুধবার (৮ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বালকাপাড়া গ্রামের যুবসমাজের উদ্যোগে গ্রামবাসী নিজ ইচ্ছেতে লকডাউন ঘোষণা করে। দেশের করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতি বিবেচনা করে গ্রামবাসী ঘরে থাকার জন্য এ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে বালকাপাড়া গ্রামের আহসান হাবীব জানান, মহামারী করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঝুঁকি মোকাবিলায় গ্রামবাসীর সহযোগিতায় আমরা যুবসমাজ গ্রামবাসীর নিজ ইচ্ছেতে লকডাউন করেছি। গ্রামবাসী ও নিজেদের নিরাপদে রাখতে নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থান করাসহ জরুরি কোনো যানবাহন ব্যতিত বহিরাগতদের গ্রামে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। তবে জরুরি প্রয়োজন নিশ্চিত করে গ্রাম থেকে বাইরে এবং বাইর থেকে গ্রামে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে।
তারা আরো জানান, অযথা বিনা প্রয়োজনে বাড়ির বাইরে বের হলে আমরা তাদের বুঝিয়ে আবার বাড়ি ফিরে যেতে অনুরোধ করছি। মহামারী করোনাভাইরাসের এই সময়ে কোনো আত্মীয়-স্বজন গ্রামে যেনো বেড়াতে না আসে সে বিষয়ে সবাইকে অনুরোধ করা হচ্ছে। লক ডাউনের ফলে গ্রামবাসীর কোন রকমের দুর্ভোগ যেন সৃষ্টি না হয়, সে বিষয়টিও খেয়াল রাখা হচ্ছে। কারো খাবার প্রয়োজন হলে বা অতি প্রয়োজনীয় কাজ আমরাই দায়িত্ব নিয়ে করে দিচ্ছি। বহিরাগত কেউ যেনো গ্রামে ঢুকতে না পারে সেজন্য গ্রামের মোড়ে মোড়ে বসানো হয়েছে টহল। পুরো গ্রামটিকে নজদারিতে রাখা হয়েছে।
এ বিষয়ে স্থানীয় মেম্বার ফরিদ উদ্দিন সবুজ জানান, করোনাভাইরাসের প্রভাব এবং বিস্তাররোধে গ্রামবাসীকে নিরাপদে রাখতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গ্রামবাসীদের সাথে আলোচনা করে তারা লকডাউনের মতামত দিয়েছে সেজন্য স্থানীয় যুবসমাজের উদ্যোগে গ্রামকে লকডাউন করা হয়েছে। গ্রামে অনেকে ঢাকা থেকে এসেছে আমরা তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার জন্য বলেছি।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন চন্দ্র রায় জানান, দেশে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে চলেছে সেক্ষেত্রে গ্রামের সকলে নিরাপদে থাকতে যে উদ্যোগ নিয়েছে সেটি একটি ভালো উদ্যোগ যদি কোন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না হয়। বরেন্দ্র বার্তা/রিআরি/অপস

Close