পুঠিয়া

রাজশাহীতে পবা হাইওয়ে পুলিশের সাথে ৩নং বানেশ্বর ইউপি সদস্য মালেকের দুর্ব্যবহার দেখে নেয়ার হুমকি দিলেন পুলিশ কে

 

মোঃআমজাদ হোসেন, পুঠিয়া : ভয়াল ভয়ঙ্কর জৈব ভাইরাস করোনার দাপটে স্তব্ধ হয়ে গেছে জনজীবন । দেশজুড়ে লকডাউন সময়সীমা বেড়ে গিয়েছে । চারদিকে চলছে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা চলছে চেকিং।
পুলিশের উদ্যোগে বিভিন্নভাবে মানুষকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে রাস্তার মোড়ে মোড়ে আঁকা হয়েছে পথচিত্র, এরি মধ্যে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার ৩নং বানেশ্বর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুর মালেক বৃহস্পতিবার দুপুর সারে ১২ টার দিকে রাজশাহী পবা হাইওয়ে পুলিশের সথে দুর্ব্যবহার করেন ও অকথ্য ভাষায় কথা বলেন ডিউটি রত পুলিশ সদস্যদের দেখে নেয়ার হুমকি দেন।
এবিষয়ে ডিউটি রত অফিসার এসি এস আই মালেক বলেন করোনা ভাইরাসে সারাদেশে সরকার ঘোষিত লকডাউন চলছে তাই আমরা মহাসড়কে প্রতিটা গাড়ী তল্লাশি করছি ও সচেতন করছি আজ দুপুর সারে ১২ টার দিকে একজন মোটরসাইকেল আরোহী মাথায় হেলমেট ও মোটরসাইকেলের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র বিহীন ঢাকা- রাজশাহী মহাসড়কের পবা হাইওয়ে পুলিশের শিবপুর হাট সংলগ্ন মহাসড়কে চেকপোস্ট বসায় এমন সময় ঐ মোটরসাইকেল আরোহী কে আমরা থামতে বলি এসময় তিনি তার মোটরসাইকেল টি থামিয়ে তিনি প্রথমে তাকে ওয়ার্ড কমিশানর পরিচয় দেন পরে তিনি তাকে ৩নং বানেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বলে দাবী করেন ও সর্বশেষ তিনি তাকে মেম্বার বলে পরিচয় দেন এসময় তিনি ডিউটি রত পুলিশ সদস্যদের দেখে নেয়াড় উমকি দেন এবং বলেন আমরা পুলিশ প্রশাসন নিয়ন্ত্রণ করি তোমার মত একজন সাধারণ পুলিশ অফিসার আমার কিছু করতে পারবেনা সাহস থাকলে আমার গাড়ী ফাঁড়ীতে নিয়ে দেখ তোরমা আমার টার্গেট থাকলো বলে তিনি পুলিশ হাত থেকে চাবি কেড়ে নিয়ে চলে যান ৩নং বানেশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের ৪ ওয়ার্ডে মেম্বার আব্দুর মালেক। বরেন্দ্র বার্তা/অপস

Close