জয়পুরহাটশিরোনাম-২

জয়পুরহাটে এবার ঔষধ প্রতিনিধির শরীরে করোনাভাইরাস সনাক্ত

 

জয়পুরহাট প্রতিনিধি: জয়পুরহাটে ঢাকা ফেরত ঔষধ কম্পানিতে চাকুরী করা এক যুবকের শরীরে করোনাভাইরাস সনাক্ত হয়েছে।

শনিবার রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ল্যাবরেটরি থেকে ২২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২১ জনের নেগেটিভ হলেও ২৪ বছর বয়সের যুবকের রিপোর্টে করোনা সনাক্তের কথা নিশ্চিত করেন জেলা সিভিল সার্জন ডা: সেলিম মিঞা। সনাক্ত ব্যাক্তি আক্কেলপুরের তিলকপুর বিষ্ণপুর গ্রামের বাসিন্দা।

তিলকপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সেলিম মাহমুদ সজল জানান, যুবকটি লেখাপড়া শেষ করে ঢাকাতেই চলে যায়। তারপর সেখানে একটি ঔষধ কোম্পানীর প্রতিনিধির (রিপ্রেনজিটিভ) চাকুরী করত এবং মিরপুর-১ নম্বরে থাকত। বেশ কিছুদিন আগে সে বাড়িতে আসে। তারপর থেকে সে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়েরেন্টাইনেই ছিল।

আক্কেলপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিউল ইসলাম জানান, আক্রান্ত যুবক ০৭ দিন আগে ঢাকা থেকে আক্কেলপুরের তিলকপুর বিষ্ণপুর গ্রামে এসেছিল। তারপর থেকে যুবক হোম কোয়েরেন্টাইনে ছিলেন। আক্রান্ত যুবকের আশ-পাশের দুইটি বাড়ির সদস্যকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে থাকতে বাধ্য করা হয়। করোনা সনাক্তের পর তাকে গোপীনাথপুর ইনস্টিটিউট হেলথ টেকনোলজির আইসোলেশনে ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে।

জয়পুরহাট সিভিল সার্জন ডাঃ সেলিম মিঞা জানান, শনিবার বিকেলে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজের ল্যাবরেটরিতে ৩৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৩৬ জনের নমুনা নেগেটিভ হলেও গাজীপুর ফেরত ২০ বছর তরুণী এক গার্মেন্টস কর্মীর শরীরে করোনাভাইরাস সনাক্ত হয়েছে অপরদিকে ওই দিন রাতেই রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ল্যাবরেটরিতে ২২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২১ জনের নমুনা নেগেটিভ হলেও ঢাকা ফেরত এক যুবকের শরীরে করোনাভাইরাস সনাক্ত হয়েছে। পরে তাকে আক্কেলপুর উপজেলার গোপীনাথপুর ইনস্টিটিউট হেলথ টেকনোলজির আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ।

এর আগে কালাই উপজেলার জিন্দারপুর গ্রামে প্রথম দুইজন ও পাঁচবিবি উপজেলার ছোট মানিকগ্রামে ও পূর্বকড়িয়া দুইজন ও গাজীপুর ফেরত ২০ বছর তরুণী এক গার্মেন্টস কর্মীর করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এ নিয়ে জেলায় মোট ৬ জন আক্রান্ত হলেন। আগের আক্রান্ত ৫ জনকেও আইসোলেশনে রাখা হয়েছে এবং এদের মধ্যে পুরাতন চারজন করোনী রোগী সুস্থ আছেন

বরেন্দ্র বার্তা/রিআরি/অপস

Close